[X]

কমলার খোসার নানা গুন

কমলালেবু খাওয়ার পর সাধারণত আমরা এর খোসা ফেলে দেই। কারণ আপাত দৃষ্টিতে এর কোনো গুণাগুণ আমরা খুঁজে পাই না। কিন্তু অনেকেই জানি না যে এই কমলার খোসার রয়েছে অসাধারণ পুষ্টিগুণ ও ব্যবহার। অন্যান্য অনেক ফলের খোসার চেয়ে কমলার খোসার গুণাগুণ অনেক বেশি।

কমলাতে প্রচুর পরিমাণে খনিজ উপাদান বিদ্যমান; যা হৃদস্পন্দন নিয়ন্ত্রণ এবং স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করে। কমলার পাশাপাশি এর খোসারও অনেক গুণ রয়েছে।

তাহলে চলুন দেখে নেই কমলার খোসার বিভিন্ন ব্যবহার:

১) অনেকদিন ব্যবহারের ফলে ফ্রিজে যে দুর্গন্ধ হয় তা দূর করতে কমলার খোসাতে লবণ ছড়িয়ে ফ্রিজে রাখুন। অল্প সময়ের মধ্যে এর সুফল পাওয়া যাবে।

২) কাঠের আসবাব পরিষ্কার করতে ব্যবহার করতে পারেন কমলার খোসা। এর জন্য দুই সপ্তাহ ভিনেগারে ডুবিয়ে রাখুন কমলার খোসা। খোসা ফেলে দ্রবণটি স্প্রে বোতলে নিয়ে কাঠের আসবাবে স্প্রে করুন। এরপর শুকনা কাপড় দিয়ে মুছে ফেলুন।

৩) জুতার তলায় আলকাতরা বা অন্য যেকোনো ধরনের কালি লাগলে তা দূর করতে কমলার খোসা ব্যবহার করা যায়।

৪) কমলার খোসা দিয়ে দৃষ্টিনন্দন প্রদীপ তৈরি করা যায়। ইচ্ছে মতো নকশা করে নিতে পারেন খোসা। কমলার খোসা ছাড়ানোর আগে লক্ষ্য রাখতে হবে, কমলার গোড়ার সাদা আঁশের মতো অংশ যেন খোসার সঙ্গে খুলে না যায়। এরপর সাদা আঁশ আঙুল দিয়ে সলতের মতো করে ভেতরে তেল দিন। আর সলতের মাথায় আগুন দিন।

৫) কাপড়ের আলমারির ভ্যাপসা গন্ধ দূর করতে পাতলা প্লাস্টিকে কমলার খোসা নিয়ে রেখে দিন। শুকিয়ে গেলে তা ফেলে দিয়ে আবার নতুন করে কমলার  খোসা রেখে দিন।

৬) চুল ঝলমলে করতে ব্যবহার করা যায় কমলার খোসা। খোসাসহ একটি কমলা ব্লেন্ড করে চুলে লাগান। কিছুক্ষণ পর ধুয়ে ফেলুন। চুল হবে উজ্জ্বল ও ঝলমলে।

৭) বয়ামে রাখা চিনি শক্ত হয়ে গেলে কয়েক টুকরা কমলার খোসা দিয়ে ঝাঁকিয়ে নিন। দলা ভেঙে যাবে।