আর্জন্টিনাহীন বিশ্বকাপ! এও কি সম্ভব?

পেন্ডুলামের সুতায় চড়েছে আর্জেন্টিনার আসন্ন বিশ্বকাপের অংশগ্রহণ। লায়লেন মেসিবিহীন রাশিয়া আসরের অসম্ভব কল্পনাও পৌঁছে গেছে বাস্তবতার আরো কাছাকাছি।

বাংলাদেশ সময় শুক্রবার ভোরে বোকা জুনিয়র্সের মাঠে খেলতে নেমে গোলের জন্য মরিয়া আর্জেন্টাইনদের ভাগ্যে হাতাশা ছাড়া কিছুই জোটেনি। মাস্টউইন খেলায়ও গোল মিসের উৎসব ৪৭ বছর পর প্রথমবারের মতো তাদের বিশ্বকাপ মিসের সম্ভাবনা বেড়ে গেছে বহু গুণে।

বার্সেলোনা সেনসেশন লায়নেল মেসিও সুযোগ পেয়েছেন গোল করার। কিন্তু আর্জেন্টাইন জার্সিতে দুর্ভাগ্য অব্যাহত থেকে গেছে তারও। পেরুর গোলরক্ষকের অসাধারণ কিছু সেভ ও গোলপোস্টের নিশ্চিত গোলবঞ্চিত হন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক।

প্লে-মেকার পজিশনে ম্যাচের সূচনায় তিনি সহজ কয়েকটি গোলের বলও জোগান দেন। কিন্তু লোকাল হিরো বোকা জুনিয়র্সের দারিও ও সিরি এ’র আলোচিত স্ট্রাইকার গোমেজের অকল্পনীয় মিসে গোলোৎসব ব্যতীতই ঘরে ফিরেছেন ভক্তরা। শঙ্কা বেড়েছে আর্জেন্টিনাবিহীন রাশিয়া বিশ্বকাপের। হোম ভেনুতে তাদেরকে গোলশূন্য রুখে দিয়ে ২০১৮ সালের মেগা আসরে অংশগ্রহণের স্বপ্ন জিইয়ে রেখেছে পেরু।

আর্জেন্টিনা সফরে পেরুর ড্র ও প্যারাগুয়ের কামব্যাক জয় সমীকরণ জটিল করে দিয়েছে ব্রাজিল ব্যতীত বাকি দলগুলোর মধ্যে কে কে খেলবে রাশিয়ায়! আসছে ১৮তম রাউন্ডের ম্যাচের ফলাফলেই নির্ধারিত চূড়ান্ত বিজয়ীর স্বপ্ন পূরণের উৎসব ভাগ্য। ১৭ খেলা শেষে পয়েন্ট টেবিলের ৩ থেকে ৭ নম্বরে থাকা ৫ দলের মধ্যে ব্যবধান মাত্র ২ পয়েন্টের। আর্জেন্টিনা ২৫ পয়েন্ট নিয়ে রয়েছে ৬-এ। পেরুর দখলে পঞ্চম তথা প্লে-অফের পজিশন।

২৬ পয়েন্ট সংগ্রহে চিলি ও কলম্বিয়া রয়েছে ৩ ও ৪ নম্বরে। লাতিন অঞ্চল থেকে ব্রাজিলের পর রাশিয়া বিশ্বকাপে অংশগ্রহণে ঢের এগিয়ে গেছে উরুগুয়ে। ১৭তম ম্যাচে ভেনিজুয়েলার সাথে ড্র সত্ত্বেও রাশিয়ার টিকিট নিশ্চিত ধরে নিয়ে বাছাইপর্বের শেষ খেলায় মাঠে নামবে লুইস সুয়ারেজের দল। অবশিষ্ট তিনটি দল (সরাসরি ২টি ও প্লে-অফ ১টি) মর্যাদা অর্জনের নিষ্পত্তি হবে সমাপ্তি দিনে।

ভূপৃষ্ঠ থেকে অস্বাভাবিক উচ্চতায় অবশিষ্ট কুইটো সফরে স্বাগতিক ইকুয়েডরের বিপক্ষে শেষ রাউন্ডের খেলায় লড়বে আর্জেন্টিনা। দেশটি সফরে মেসি অ্যান্ড কোংয়ের উত্তরসূরিদের অতীত পরিসংখ্যান মোটেও স্বাচ্ছন্দ্যের নয়। শেষ ৩ ম্যাচের ২টিতেই হার। ড্র হয় অন্যাটি। তবে সর্বশেষ ২০০১ সালে কুইটো সফরে বাছাইপর্বের জয়োৎসব থেকে প্রেরণা গ্রহণের সুযোগ থাকছে আর্জেন্টিনার বর্তমান জেনারেশনের ফুটবলারদের।

শেষ খেলায় ড্র’তেও প্লে-পজিশনে থেকে রাশিয়া বিশ্বকাপের টিকিট অর্জনের সুযোগ আসতে পারে আর্জেন্টিনার সামনে। এ ক্ষেত্রে চিলির বিপক্ষে ব্রাজিলের বড় জয়োৎসব, প্যারাগুয়ের পয়েন্ট খোয়ানো ও পেরুর বিপক্ষে কলম্বিয়ার ৩ পয়েন্ট অর্জন প্রয়োজন। কিন্তু কুইটোতে ইকুয়েডরের বিপক্ষে জয় রাশিয়ার টিকিট অর্জনে আর্জেন্টিনাকে পৌঁছে দেবে সুবিধাজনক অবস্থানে।

লাতিন আমেরিকার ম্যারাথন বাছাইপর্বের শেষ খেলায় ‘জটিল ওই সমীকরণ’ বিশ্বাস অটুট রাখতে প্রেরণা জোগাচ্ছে কোচ জর্জ সামপাওলিকে। পেরুর বিপক্ষে খেলায় গোল মিসের আফসোস করেন চিলিকে ফুটবলের প্রথম শিরোপা উপহার দেয়া আর্জেন্টাইন। তিনি বলেন, ‘আজ একচ্ছত্র খেলেছি আমরা। কিন্তু গোল হয়নি। পয়েন্ট টেবিলে পজিশন স্বস্তির নয়। কিন্তু সব কিছুই নির্ভর করছে আমাদের ওপর। আমি প্রচণ্ড আশাবাদী আর্জেন্টিনা খেলবে আসছে বিশ্বকাপে। বর্তমান ফুটবলাররা ২০১৮ আসরে না থাকলে তা হবে প্রতিভার ওপর অবিচার।’

পেরুর বিপক্ষে বল পজিশনে একক আধিপত্য বিস্তার করে খেলেছে আর্জেন্টিনা। গোল করার মতো সুযোগও তারা পেয়েছে বেশ ক’টি। কিন্তু কখনো সফরকারী গোলরক্ষক, আবার কখনো বা গোলপোস্ট বাধায় নিরাশ করেছে দর্শককে। আবার সহজ গোলের সুযোগও হেলায় নষ্ট করেছেন দারিও ও গোমেজ। ফলে বহু গুণেই বেড়ে গেছে সত্তরের পর প্রথম আর্জেন্টিনাবিহীন ফুটবলের গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ বিশ্বকাপ বাস্তবতাও!