চারদিনের টেস্ট খেলবে দক্ষিণ আফ্রিকা ও জিম্বাবুয়ে

অনেক জল্পনা-কল্পনার পর অবশেষে অনুমোদন পেয়েছে চারদিনের টেস্ট। পাঁচদিনের স্থলে একদিন কমে চারদিনব্যাপী এই টেস্টের অনুমোদন আইসিসি দিয়েছে বৃহস্পতিবার অকল্যান্ডে অনুষ্ঠিত আইসিসির সভায়।

অবশ্য প্রথমে এই চারদিনের টেস্ট অনুষ্ঠিত হবে পরীক্ষামূলকভাবে। প্রথম চারদিনের টেস্টে মুখোমুখি হবে দক্ষিণ আফ্রিকা ও জিম্বাবুয়ে। চলতি বছর বক্সিং ডে-র পোর্ট এলিজাবেথে অনুষ্ঠিত হবে এই আকর্ষণীয় ম্যাচটি।

এদিকে চারদিনের টেস্ট ম্যাচ খেলতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে সদ্য টেস্ট স্ট্যাটাস প্রাপ্ত দল আয়ারল্যান্ডও। ২০১৯ বিশ্বকাপের আগ পর্যন্ত পরীক্ষামূলকভাবে চারদিনের টেস্ট আয়োজনের অনুমোদন দিয়েছে আইসিসি।

চারদিনের টেস্ট ক্রিকেটের শীর্ষ দলগুলোর সাথে আয়ারল্যান্ড ও আফগানিস্তানের মতো নব্য দলের বৈষম্য কমাতে সাহায্য করবে- এমনটি জানিয়েছেন আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেভ রিচার্ডসন। তিনি বলেন, ‘আমরা একটি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের কাঠামো গঠন করায় গুরুত্ব দিচ্ছিলাম। টেস্ট লিগের প্রতিটি ম্যাচে পাঁচদিনই খেলা হবে।’

রিচার্ডসন আরও বলেন, ‘টেস্টের ভবিষ্যতের জন্য আমাদেরকে বিকল্প ব্যবস্থাগুলো সম্পর্কেও ভেবে রাখতে হবে। এরই ধারাবাহিকতায় দিবারাত্রির টেস্ট অনুষ্ঠিত হয়েছে এবং টেস্টে প্রযুক্তি ব্যবহার বৃদ্ধি পেয়েছে।’

চারদিনের টেস্ট প্রসঙ্গে আইসিসির এই প্রধান নির্বাহী বলেন, ‘অভিজ্ঞ দলগুলোর বিপক্ষে নতুন দলগুলোর খেলা জমিয়ে তুলতে চারদিনের টেস্টও আয়োজন করা যাবে। এতে ছোট দলগুলো বড়দের সাথে তাদের দুরত্ব ঘোচাতে সক্ষম হবে এবং এটি তাদের দক্ষতা বাড়াতে সাহায্য করবে।’

এর আগে চারদিনের টেস্ট আয়োজনের সুপারিশ করার পর জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ডকে চারদিনের টেস্ট খেলার আমন্ত্রণ জানিয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থা ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা (সিএ)। সিএ-র আমন্ত্রণে সাড়াও দিয়েছিল জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট। আইসিসির অনুমোদন পেয়ে যাওয়ার এখন আর চারদিনের ম্যাচ আয়োজনে দুই দলের কোনো বাধা রইল না।

এদিকে চারদিনের টেস্টে অংশ নিতে চাচ্ছে টেস্ট পরিবারের নব্য সদস্য আফগানিস্তানও। দলটির এখনও টেস্ট অভিষেক না ঘটলেও অচিরেই উইলিয়াম পোটারফিল্ডদের দেখা যেতে পারে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটের মতো চারদিনের টেস্ট ম্যাচ খেলতে।-বিডি ক্রিকটাইম