দেড় বছর পর প্রেক্ষাগৃহে মৌসুমী

মৌসুমী। ঢালিউডের জনপ্রিয় এবং সফল মুখ। ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই তিনি একের পর এক সফল ছবি উপহার দিয়ে যাচ্ছেন। বর্তমানে বেশকিছু ছবির কাজ নিয়ে ব্যস্ত আছেন বাংলা চলচ্চিত্রের এই প্রিয়দর্শিনী। চলতি বছরে শুটিং শেষ করা মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’ ছবিটি আগামীকাল প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে। ছবিটির মধ্য দিয়ে দেড় বছর পর সিনেমার পর্দায় হাজির হচ্ছেন তিনি।

এর আগে সবশেষ গত বছরের এপ্রিলে মুশফিকুর রহমান গুলজারের ‘মন জানে না মনের ঠিকানা’ ছবিতে তাকে সবশেষ বড় পর্দায় দেখতে পেয়েছেন দর্শক। অনেকদিন পর প্রেক্ষাগৃহে আবারো নতুন ছবি নিয়ে হাজির হওয়া প্রসঙ্গে মৌসুমী মানবজমিনকে বলেন, দীর্ঘদিন পর আমার নতুন ছবি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে।
এ ছবির কাহিনীটা একটু ভিন্ন ধরনের। গ্রামবাংলার মানুষের প্রেক্ষাপট নিয়ে ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’ ছবিটি নির্মিত হয়েছে। আমার বিশ্বাস, এ ছবির গান ও গল্প দর্শকের মনে জায়গা পাবে। অনেকদিন দর্শকরা এ ধরনের ছবি দেখেননি। ছবিটিতে আমার বিপরীতে ডিপজল ভাই অভিনয় করেছেন।

এছাড়া বাপ্পি ও মিম আছে ছবিতে। আশা করি, ছবিটি দর্শক পছন্দ করবেন। এদিকে এ ছবির বাইরে মৌসুমী অভিনীত ও এ কে সোহেল পরিচালিত ‘পবিত্র ভালোবাসা’ নামে একটি ছবি মুক্তির জন্য প্রস্তুত রয়েছে। এ ছবিতে মৌসুমীর বিপরীতে অভিনয় করেছেন ফেরদৌস। এছাড়া উত্তম আকাশের পরিচালনায় সমপ্রতি ‘আমি নেতা হব’ ছবির কাজ শেষ করেছেন এ অভিনেত্রী। এ ছবিতে তার বিপরীতে অভিনয় করেছেন ওমর সানী।

বর্তমানে ছবিটির ডাবিং চলছে। এসব কাজের বাইরে উত্তরার ৩ নম্বর সেক্টরের ১৮ নম্বর রাস্তার ৩৯ নাম্বার বাসার ৪র্থ তলায় একটি অভিজাত রেস্তরাঁ দিয়েছেন মৌসুমী। নতুন এ রেস্তরাঁর নাম ‘মেরি মন্টানা’। অবসরে সেখানে মাঝে মাঝে সময় কাটাতে পছন্দ করেন তিনি। প্রসঙ্গত মৌসুমী গত মার্চে অনুষ্ঠিত হওয়া বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্যপদে জেতার পরও শপথ গ্রহণ করেননি।

বরং, ব্যক্তিগত কারণে এই পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে শিল্পী সমিতিতে অব্যাহতি পত্র পাঠান। বর্তমানে তিনি চলচ্চিত্রের অভিনয়শিল্পী, প্রযোজক, পরিচালক, হলমালিকসহ বিভিন্ন কলাকুশলীদের নিয়ে নবগঠিত সংগঠন ‘বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ফোরাম’-এর আন্তর্জাতিক সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করছেন।-জুম বাংলা