মহিলাদের মস্তিষ্ক সম্পর্কে যে বিষয়গুলো পুরুষদের জেনে রাখা উচিত

যন্ত্রণা এবং চাপ— এই দুইয়ের প্রভাবই মহিলাদের মস্তিষ্কে গভীর সমস্যার সৃষ্টি করে। তাই এই দু’টি থেকে তাঁদের যত দূরে রাখা যায়, ততই ভাল।  ঝুঁকি নিতে ভালবাসেন মহিলারা। তাঁদের মস্তিষ্ক সেভাবেই তৈরি।

মহিলাদের মস্তিষ্কে সব থেকে বড় পরিবর্তনটা আসে বয়ঃসন্ধিতে। এই সময়ে তাদের আগলে রাখতে হয় সব থেকে বেশি।

অন্তঃসত্ত্বা থাকাকালীন মহিলাদের মস্তিষ্কে নানা পরিবর্তন আসে। এই সময়ে তাঁদের উপর কোনও মানসিক চাপ স্থায়ী ক্ষতি করতে পারে মস্তিষ্কে।

সন্তানের জন্মের পরে স্তন্যপানের সময়েও মহিলাদের মস্তিষ্কে প্রচুর পরিবর্তন আসে। এই সময়েও তাঁকে যত্নে রাখা গুরুত্বপূর্ণ।

যৌনতার সময়ে মহিলাদের মস্তিষ্কের বহু অংশই কাজ করে না। ফলে, তাঁদের চিন্তাভাবনার ক্ষমতা সেই সময়ে একেবারে কমে যায়। মেয়েরা ঝগড়ুটে? কে বলে? মেয়েরা কোনওভাবেই ঝগড়া পছন্দ করেন না।

মহিলারা স্বভাবে আগ্রাসী হন না। কারণ, তাঁদের মাথায় একটি বিষয় কাজ করতে থাকে বেশিরভাগ সময়েই— পরিবার, স্বামী, সন্তান তাঁর উপরে নির্ভরশীল।

মহিলাদের ইনট্যুইশন ছেলেদের থেকে বেশি। ফলে বাইরে এটা-ওটা কুকীর্তি করে ঘরে ঢুকলে ধরা পড়ে যাবেন।ঋতুচক্রের সময়ে মহিলাদের মেজাজ ক্ষণে ক্ষণে পাল্টাতে থাকে। মস্তিষ্কে প্রভাব ফেলে নানা হরমোন।

সূত্র: এবেলা.ইন