ওয়ানডে দলে ফিরলেন ‘নিষিদ্ধ’ স্টোকস-হেলস

গত ২৫ সেপ্টেম্বর নাইট ক্লাবে মারামারি করায় গ্রেফতার হন বেন স্টোকস। পরে জামিন পেলেও তদন্তের মুখে রয়েছেন ইংল্যান্ডের এই তারকা অলরাউন্ডার। এরপর অনির্দিষ্টকালের জন্য দল থেকেই বাদ পড়েন তিনি। জায়গা হয়নি অ্যাশেজ সিরিজের দলেও। তবে মারামারির অভিযোগ নিষ্পত্তি হওয়ার আগেই ওয়ানডে দলে ডাক পেয়েছেন এই ইংলিশ অলরাউন্ডার।

একই ঘটনায় স্টোকসের সঙ্গে বাদ পড়া অ্যালেক্স হেলসকেও ওয়ানডে দলে নেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার স্টোকস-হেলসের ওয়ানডে স্কোয়াডে থাকার খবরটি নিশ্চিত করেছেন ইংলিশদের কোচ ট্রেভর বেলিস। তবে পুলিশের তদন্ত শেষ না হওয়ায় অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে এই সিরিজে তারা খেলবেন কিনা, সেটা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

কোচ ট্রেভর বেলিসের দাবি, স্টোকসকে মাঠে নামানোটা সার্কাসের মতো। স্টোকসকে একাদশে রাখা হবে কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে বেলিস বলেছেন, ‘সে যখন দলে ফিরবে, সেটা নিশ্চিতভাবে সার্কাস হবে। কিন্তু একসময় মানিয়ে নিতে হবে। আমি জানি না তাকে খেলানো হবে কিনা। এখনো পুলিশের রিপোর্ট আমরা পাইনি।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দুটি ওয়ানডে ম্যাচে দলে ছিলেন না বেন স্টোকস ও অ্যালেক্স হেলস। ওই সময় নাইট ক্লাবে মারামারি করে গ্রেফতার হওয়ায় তাদেরকে দলের বাইরে রাখার সিদ্ধান্ত নেয় ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)।

জানা গেছে, নাইট ক্লাবে হেলসের সম্পৃক্ততা খুঁজে পাওয়া যায়নি। একারণে ডানহাতি এই ব্যাটসম্যানের খেলতে অসুবিধা নেই। তবে দেশটির গণমাধ্যম বলছে, স্টোকসের সঙ্গে হেলসও শেষ পর্যন্ত ফেঁসে যেতে পারেন।

স্টোকসকে ছাড়া ব্রিসবেন ও অ্যাডিলেডে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টানা দুই টেস্টে হেরেছে ইংলিশরা। তাদের সামনে এখন পাঁচ ম্যাচের সিরিজ বাঁচানোর চ্যালেঞ্জ। আগামী ১৪ ডিসেম্বর পার্থে শুরু হবে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের তৃতীয় টেস্ট। টেস্টের পর পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে মুখোমুখি হবে দুদল। ১৪ ১৪ জানুয়ারি মেলবোর্নে অনুষ্ঠিত হবে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে। বাকি চার ওয়ানডে অনুষ্ঠিত হবে যথাক্রমে ১৯, ২১, ২৬ ও ২৮ জানুয়ারি।

ইংল্যান্ডের ওয়ানডে দল: ইয়ন মরগান (অধিনায়ক), জেসন রয়, জনি বেয়ারস্টো, অ্যালেক্স হেলস, জো রুট, স্যাম বিলিংস, জস বাটলার, বেন স্টোকস, মঈন আলী, আদিল রশিদ, ডেভিড উইলি, লিয়াম প্ল্যাঙ্কেট, টম কুরান, মার্ক উড ও জ্যাক বল।—প্রিয়