যেভাবে বিপিএলে স্পট ফিক্সিং হয়!

চলমান অ্যাশেজ সিরিজে স্পট ফিক্সিংয়ের অভিযোগ উঠেছে। ঐতিহাসিক সিরিজটি এমন অপবাদের অভিযোগে দুষ্ট হওয়ার পর বিশ্ব ক্রিকেটাঙ্গনে উঠেছে আলোচনা-সমালোচনার ঝড়। এর মধ্যেই ফিক্সিং আগুনে ঘি ঢেলে দিলেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক পেসার ডার্ক ন্যানেস।

তিনি দাবি করলেন, ২০১৩ সালে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) বেশ কিছু ম্যাচে ফিক্সিং হয়!ওই আসরে বিলুপ্ত সিলেট রয়্যালসের হয়ে খেলেন ন্যানেস। ফ্র্যাঞ্চাইজিটির হয়ে খেলা কয়েকটি ম্যাচের কিছু মুহূর্ত নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তিনি, ‘বিপিএলে কয়েকটি ম্যাচে কিছু মুহূর্ত নিয়ে আমি সন্দিহান।

যেমন ধরেন, ম্যাচ শুরুর আগে প্রথমে মালিকেরা মাঠে ঢুকে পড়তেন। যদিও ওই মুহূর্তে তাদের মাঠে প্রবেশের অনুমতি নেই। পরে মালিকের সঙ্গে দেখা করতেন টিম ম্যানেজার।

তিনি মালিককে জিজ্ঞেস করতেন, এখন কী করব? পরে কোচের কাছে যেতেন। তাদের এমন চলাফেরা থামাতে নিরাপত্তাকর্মীদের নাভিশ্বাস উঠে যেত। মালিকেরা সবসময় নিজের কাছে মোবাইল ফোন রাখতেন। তারা সবসময় কোচের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতেন।’

পার্থে চলছে অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ডের অ্যাশেজ সিরিজের তৃতীয় টেস্ট। এতে ধারাভাষ্যকার হিসেবে কাজ করছে ন্যানেস। ওয়াকার গ্র্যান্ডস্ট্যান্ডে দাঁড়িয়ে তিনি বলেন, ‘বিপিএলের ওই আসরে গ্যালারিতে দর্শক সারিতে থাকতেন বাজিকররা। তাদের শার্টের হাতায় থাকত মাইক্রোফোন। কোমরে থাকত ১০টির মতো মোবাইল ফোন।

ম্যাচে কিছু ঘটলেই মাইক্রোফোনে তারা কথা বলত। যা ইচ্ছা তা-ই করত।’শুধু বিপিএল নয়, আইপিএলেও স্পট ফিক্সিং হয় বলে জানান ৪১ বছরের বাঁহাতি পেসার।২০১৩-বিপিএল আসরে স্পট ফিক্সিংয়ের কথা স্বীকার করেন বাংলাদেশের লিটল মাস্টার মোহাম্মদ আশরাফুল। পরে তিনি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিষিদ্ধ হন।

সূত্র: আরটিভিঅনলাইন