অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি, এই নিম গাছের পাতা মিষ্টি!

উদ্ভিদবিদ তাপসকুমার পাল জানিয়েছেন, এটি ব্যাতিক্রমী ঘটনা। তবে এর পিছনেও বৈজ্ঞানিক কারণ রয়েছে।

মিষ্টি নিম পাতা। হ্যাঁ, অবাক লাগলেও সত্যি। আর এই মিষ্টি নিমপাতা খাওয়ার জন্য রীতিমতো ভিড় জমতে শুরু করেছে বর্ধমানের বড়শুলে।

নিমপাতার স্বাদ সাধারণত তেতোই হয়। তাই এই মিষ্টি নিমপাতার কথা শোনার পরে স্বাভাবিকভাবেই তা পরখ করে দেখতে উৎসুক সাধারণ মানুষ। স্থানীয় বাসিন্দারা জানাচ্ছেন, পুরনো এই নিম গাছের পাতার স্বাদ নাকি বরাবরই মিষ্টি। এমনকী, এই নিম গাছের চারা থেকে নতুন গাছ হলে তার পাতাও মিষ্টি হয়।

সম্প্রতি এই নিম গাছের কথা লোকমুখে ছড়িয়ে পড়ে। তার পর থেকেই এই পাতার স্বাদ পেতে বরশুলের ভিড় জমাচ্ছেন প্রচুর মানুষজন। তবে উদ্ভিদবিদ তাপসকুমার পাল জানিয়েছেন, এটি ব্যাতিক্রমী ঘটনা। তবে এর পিছনেও  বৈজ্ঞানিক কারণ রয়েছে।

কোনও কোনও ক্ষেত্রে এমন হয়ে থাকে। সেক্ষেত্রে খুব স্বল্প পরিমাণে গ্লাইকোস্লাইড পেন্টোজ কার্বো হাইড্রেড এবং রেডিওসিন সুগার গাছের নিম পাতায় থাকে। ব্যাতিক্রম হিসাবে এই উপাদানগুলির পরিমাণ স্বাভাবিকের থেকে বেশি হলে নিম পাতার স্বাদ মিষ্টি হয়।

তবে কারণ যা-ই হোক না কেন, এই মিষ্টি নিম পাতা নিয়ে প্রতিদিনই মানুষের আগ্রহ বাড়ছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের আরও দাবি, যাঁরা ডায়বেটিসে ভোগেন, এই নিম গাছের মিষ্টি পাতা খেয়ে নাকি তাঁরা বিশেষ উপকৃত হন। সূত্র: এবেলা