বৈবাহিক জীবনের আনন্দের স্বাদ বাড়াতে খেতে হবে এইসব খাবার

কাজের চাপে নিজেদের বৈবাহিক জীবনের আনন্দের স্বাদ ক্রমশ ফিকে হয়ে যাচ্ছে কর্মব্যস্ততার কারণে। একান্ত সময় না কাটিয়ে জীবনের আদিম সুখ থেকে বিরত থাকছেন এনার্জির অভাবে। অনেক চিকিৎসক থেকে ডায়াটিসিয়ানদের মত, অতিরিক্ত কাজের মানসিক চাপ এবং খাওয়া দাওয়া সঠিকভাবে না করাই এর কারণ। এর থেকে রেহাই পেতে যৌবনের শক্তি বাড়াতে নারী ও পুরুষ উভয়ের সুস্থ জীবনের জন্য পটাসিয়াম, ফাইবার, ভিটামিন বি–৬, ভিটামিন–এ এবং সি যুক্ত খাবার একান্ত প্রয়োজন।

 

❏‌ স্ট্রবেরি ফলিক অ্যাসিড ও ভিটামিন ‘বি’ এর চমৎকার উৎস। নারীদের বন্ধ্যাত্ব কমিয়ে উর্বরতা বাড়িয়ে দেয় এবং পুরুষের যৌন সক্ষমতা বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে। পুরুষের প্রচুর পরিমাণে শুক্রাণু বৃদ্ধির সহয়তা করে।

❏  মধু খেলে মস্তিস্ক শক্তি লাভ করে। দেহের স্বাভাবিক শক্তি তৈরি হয়। রতি শক্তি বৃদ্ধি হয়।

❏ রসুন‌‌ নিস্তেজ লোকদের মধ্যে যৌন ক্ষমতা সৃষ্টি করে। শুক্রাণু তৈরিতে সাহায্য করে। ‌পাকস্থলী, এ্যাজমা রোগের উপকার সাধন করে।

❏ ‌চকলেটে ইথাইল মাইন নামক উপাদান থাকে। গবেষকেরা যার নাম দিয়েছেন ‘লাভ কেমিক্যাল’। তাই সুখী দাম্পত্য জীবনের জন্যও নিয়মিত ডার্ক চকলেট খাওয়া যেতে পারে।

❏ শরীরকে ঠাণ্ডা রাখাতে পুদিনা পাতার রস খুব সাহায্য করে। স্নানের আগে জলের মধ্যে কিছুক্ষণ পুদিনা পাতা ফেলে রাখুন। সেই জল দিয়ে স্নান করলে শরীর ও মন চাঙ্গা থাকে। ❏  স্যালমন মাছ ‌খেলে মহিলাদের পিরিয়ড জনিত সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে। এছাড়াও  ব্যথা, ক্র্যাম্প, গর্ভে থাকা শিশুর এবং মস্তিষ্কের রক্ষনাবেক্ষন করতে সাহায্য করে স্যালমনে থাকা খাদ্যগুন।
সঠিক ব্যায়াম, একটি স্বাস্থ্যকর খাওয়ানোর নিয়মের পাশাপাশি, ওজন কমানোর বা নিয়ন্ত্রণ করা জরুরি।

❏ আভাকাডো হচ্ছে স্বাস্থ্যকর খাদ্য যা ওজন নিয়ন্ত্রণের সাথে সাহায্য করে।  আভাকাডো ফলিক অ্যাসিড, লিবডো বুস্টিং ভিটামিন–সি ভরপুর। এই খাদ্য দম্পতিদের যৌন জীবন সুস্থ করতে সাহায্য করে।

❏ শতমূলী পুষ্টিকারক ও ‌শরীরে শক্তি বৃদ্ধি করে। এর তাজা শিকড়ের রস গনোরিয়া রোগের ক্ষেত্রে উপকারী। শতমূলী যৌন শক্তিবর্ধক, বীর্য সৃষ্টিকারী হিসাবে এর কার্যকার। বিশেষ করে মূলে থাকা উপাদানটি যৌবন সুরক্ষায় সাহায্য করে। অবশ্য এর কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।‌‌