সুন্দরী প্রতিযোগিতা জীবনের অভিশাপ

২০১৩ সালে ভারতের সেরা সুন্দরী হয়েছিলেন শোভিতা ধুলিপালা। এরপর থেকে একের পর এক বলিউডের সিনেমাতে দেখা গেছে তাকে। কিন্তু খেতাব জেতার চার বছর পরে এসে তিনি মনে করছেন, সৌন্দর্য প্রতিযোগিতা আসলে যৌনতা ও শরীর বিক্রির খেলা, আর কিছুই নয়।

সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছেন, সুন্দরীদের প্রতিযোগিতায় নাম দেওয়ার কোনও ইচ্ছাই তার ছিল না। কলেজে পড়ার সময় বন্ধুদের সঙ্গে বাজি লাগিয়ে তিনি এই প্রতিযোগিতার প্রথম পর্যায়ে নাম দিতে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে জিতে যান।

তারপর একের পর এক বাধা টপকে জিতে নেন প্রতিযোগিতা। তবে তখন বুঝতে পারেননি। এখন তিনি বুঝতে পারেন, আসলে তার জীবনে অভিশাপ হয়ে এসেছে এই জয়।তিনি এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে নিজের খ্যাতিকেই খাটো করেছেন।

কারণ, তার মনে হয়েছে এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে তারাই সাফল্য পায় যাদের শরীর বিক্রি যোগ্য। এতে নারী পরিচয়কেই অসম্মান করা হয়।তবে সিনেমাতে নানা রকমের খোলামেলা দৃশ্যে অভিনয় করার বিষয়ে নাম আছে শোভিতার।

অনুরাগ কাশ্যপের সিনেমা, রমন রাঘবে একাধিক সাহসী দৃশ্যে অভিনয় করতে দেখা গেছে তাকে।একুশে টেলিভিশন