শাবনূর হাত ধরে আমাকে অভিনয় শিখিয়েছেন : শাহের খান

চিত্রনায়ক শাহের খান। একজন স্বপ্নবাজ তরুণ। তার প্রিয় মানুষ প্রয়াত চিত্রনায়ক সালমান শাহ ও নায়িকা শাবনূর। এক সময় তাদের ছবি দেখে দেখেই দিন পার হতো তার । তাদের মতো গুণী শিল্পী হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে যুক্ত হন চলচ্চিত্র অঙ্গনে। নিজেকে তৈরি করার জন্য শিখেন ড্যান্স ও ফাইট।

শাহের প্রথম চলচ্চিত্রের কাজ শুরু করেন প্রিয় নায়িকা শাবনূরকে নিয়েই। কিন্তু চলচ্চিত্রটির কাজ চলাকালে হঠাৎ মারা যান পরিচালক এম এম সরকার। বিপাকে পড়ে যান শাহের খান। বহু টানাপোড়েনের পর শেষ হয় ছবির কাজ।

অবশেষে ৫ বছর পর আগামী ১২ জানুয়ারি মুক্তি পাচ্ছে তার অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র ‘পাগল মানুষ’। একুশে টিভি অনলাইনের সঙ্গে আলাপচারিতায় ছবির পেছনের গল্প জানান শাহের খান। সেই সঙ্গে উঠে আসে তার ভালো লাগা, স্বপ্ন ও চলচ্চিত্রে ক্যারিয়ার নিয়ে ভাবনার বিষয়গুলো।

কেন চলচ্চিত্রে আসলেন?

শাহের খান: আসলে চলচ্চিত্রটা আমার স্বপ্ন। নিজের এই স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে এর সঙ্গে যুক্ত হই। আমি শাবনুর-সালমান শাহ এর ভীষণ ভক্ত। তাদেরকে দেখে অনুপ্রাণিত হয়েছি। তারা আমার স্বপ্নে এসে দেখা দিতেন। সব সময় এটা নিয়েই ভাবতাম। বলা চলে ধ্যানজ্ঞান একমাত্র চলচ্চিত্র। তারপর চিন্তা করি শুধু স্বপ্ন দেখলে তো হবে না। কাজ শুরু করতে হবে।

কিভাবে কাজ শুরু করলেন?

শাহের খান: যখন চিন্তা শুরু করি আমাকে কাজ শুরু করতে হবে তখন সঙ্গে সঙ্গে সব দিকে যোগাযোগ করতে লাগলাম। আমার এক পরিচিতের মাধ্যমে পরিচালক এম এম সরকারের সঙ্গে কথা বলি। তারপর তার সঙ্গে দেখা করি। তিনি আমাকে পছন্দ করলেন। এম এম সরকার অনেক বড় মাপের একজন ডিরেক্টর। কথা বলতে বলতে তার সঙ্গে সখ্য গড়ে ওঠে। এক সময় তিনি বললেন ঠিক আছে আস, তোমাকে নিয়ে ছবি করবো। তখন আমার বিপরীতে নায়িকা হিসেবে আমার স্বপ্নের রানী শাবনূরের নাম উঠে এলে খুব এক্সাইটেড হয়ে যাই। প্রিয় নায়িকা শাবনূরের সঙ্গে কাজ করবো এটা আমার জন্য বিশাল পাওয়া।-একুশে টেলিভিশন