সারাদেশে শৈত্য প্রবাহ আরো কিছু দিন অব্যাহত থাকবে

বুধবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয় যশোর ও চুয়াডাঙ্গায় ৫ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। কয়েক দিনের টানা তীব্র শৈত প্রবাহে কাঁপছে সারাদেশ। উত্তরে শীতের দাপট কিছুটা কমলেও কনকনে ঠান্ডায় স্থবির যশোর ও চুয়াডাঙ্গা।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, বিদ্যমান শৈত্য প্রবাহ পরিস্থিতি মৃদু থেকে মাঝারী ধরনের শৈত্য প্রবাহ হিসেবে সারাদেশে অব্যাহত থাকতে পারে। এতে বলা হয়, যশোর ও কুষ্টিয়া অঞ্চল সমুহে উপর দিয়ে তীব্র শৈত্য প্রবাহ বয়ে যাচ্ছে।

ফরিদপুর, মাদারীপুর, টাঙ্গাইল, শ্রীমঙ্গল, সীতাকুণ্ড, কুমিল্লা ও ফেনী অঞ্চলসহ রাজশাহী, রংপুর, বরিশাল, ময়মনসিংহ ও খুলনা বিভাগের অবশিষ্টাঞ্চলের উপর দিয়ে মাঝারী ধরনের শৈত্য প্রবাহ বয়ে যাচ্ছে।

গাইবান্ধায় ঘন কুয়াশা কিছুটা কেটেছে। সকালে সূর্যের দেখা পেয়ে স্বাভাবিক জীবন যাত্রায় সাধারণ মানুষ। তবে, আবারো তীব্র শীতের আশংকায় গরম কাপড় কিনছেন স্বল্প আয়ের মানুষ।

নীলফামারী, কুড়িগ্রাম ও পঞ্চগড়ে কনকনে ঠান্ডায় ঘর থেকে বের হতে না পারায় কর্মহীন হয়ে পড়েছে শ্রমজীবীরা। শীতবস্ত্রের অভাবে কষ্ট পাচ্ছে খেটে খাওয়া জনপদ।

এদিকে উত্তরে শীতের দাপট কিছুটা কমলেও কনকনে ঠান্ডায় স্থবির যশোর ও চুয়াডাঙ্গা। বুধবার সকালে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয় যশোর ও চুয়াডাঙ্গায় ৫ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর দিনাজপুরে মঙ্গলবারের চেয়ে তাপমাত্রা ৩ ডিগ্রি বেড়েছে।