আপনি কি লাজুক ও চাপা স্বভাবের ? তাহলে জেনে নিন জরুরী কিছু “ডেটিং টিপস”

অনেকেই আছে অনেক চাপা স্বভাবের। মুখচোরা, লাজুক। খুব বেশি কথা বলতে পারেন না এ ধরণের মানুষেরা। তাই প্রেম করতে গিয়ে পড়েন আরও বেশি বিপদে। সামনা সামনি দেখা হলে যেন নার্ভাসনেসে কথাই বলতে পারেন না। এমন চুপচাপ বসে থাকা ধরনের মানুষের সাথে কে প্রেম করতে চাইবে বলুন! কিন্তু তাই বলে কি লাজুক ও চাপা স্বভাবের মানুষ প্রেম করবেন না? অবশ্যই করবেন, তবে তাদেরকে মেনে চলতে হবে কিছু নিয়ম। জেনে নিন চাপা স্বভাবের মানুষদের জন্য কিছু ডেটিং টিপস।

অনলাইন ডেটিং এর সাহায্য নিন
আপনি যদি চাপা স্বভাবের হয়ে থাকেন তাহলে আপনার জন্য অনলাইন ডেটিং একটি সহজ মাধ্যম। প্রিয় মানুষটির সাথে সামনা সামনি বসে কথা বলা আপনার জন্য কঠিন হলেও লিখে কথা বলার ক্ষমতা কম বেশি সবারই আছে। তাই প্রেমের শুরুর দিকে অনলাইনেই বেশি কথা বলার চেষ্টা করুন। তাহলে অনলাইনে গল্প করতে করতে ধীরে ধীরে সম্পর্কটা সহজ হয়ে যাবে। তখন সামনা সামনিও কথা বলতে তেমন সমস্যা হবে না।

বন্ধুদের সাহায্য নিন
আপনার যদি আপনার প্রিয় মানুষটির সাথে প্রথমে সহজ হতে সমস্যা হয় তাহলে আপনার সাথে আপনার কয়েকজন বন্ধুকে রাখুন। প্রিয় মানুষটিকেও বলতে পারেন তাঁর বন্ধুদের নিয়ে আসতে। তাহলে বন্ধুদের আড্ডায় আপনি অনেকটাই সহজ হয়ে যাবেন প্রিয় মানুষটির সাথে।

নিজেকে আয়নার সামনে উপস্থাপন করুন
প্রিয় মানুষটির সামনে নিজেকে কিভাবে উপস্থাপন করবেন সেটা আয়নায় আগে দেখে নিন। আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে নিজেকে নিজে উপস্থাপন করুন। তাহলে আপনি বুঝতে পারবেন আপনার কিভাবে নিজেকে উপস্থাপন করতে হবে, কীভাবে কথা বললে আপনাকে আত্মবিশ্বাসী দেখাবে।

সঠিক ডেটিং এর স্থান নির্বাচন
চাঁপা স্বভাবে মানুষদের ডেটিং এর স্থান নির্বাচনের ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত। কোনো মিউজিক ক্যাফে যেখানে লাইভ গান শোনা যায়, সুন্দর গান ছাড়া হয় এমন স্থান এধরণের মানুষদের ডেটিং এর জন্য একেবারে পারফেক্ট। কারণ এসব স্থানে আপনি কথা কম বললেও বিরক্ত হবেন না আপনার সঙ্গী। এছাড়াও সিনেমা হলে গেলেও ভালো করেই কেটে যাবে সময়টা।

মন দিয়ে শুনুন
আপনি যেহেতু কম কথা বলেন সেহেতু আপনার সঙ্গীর কথা মন দিয়ে শুনুন। আপনার সঙ্গীর কথা মন দিয়ে শুনলে সে কথা বলার আগ্রহ পাবে এবং তখন আপনি তেমন কথা না বলতে পারলেও সে আপনার সাথে কথা চালিয়ে যেতে পারবে। তাই সঙ্গীর কথা মন দিয়ে শুনুন এবং বেশি কথা বলার চেষ্টা করতে গিয়ে ফালতু কথা বলে ফেলবেন না ভুলেও।