শুষ্ক ত্বকের সমস্যায় ভুগছেন ?

এই মৌসুমে আবহাওয়ার শুষ্কতার জন্য তক শুষ্ক ও রুক্ষ্ম হয়ে যায়, ত্বকে আসে নিষ্প্রাণ ভাব। এই জন্য শীতে নিয়মিত ত্বকের যত্ন নেয়া উচিত। কিন্তু ব্যস্ততার এই যুগে কারই বা সময় আছে আলাদা ভাবে ত্বকের একটু বেশি যত্ন নেয়ার? কিন্তু ঠিক মত যত্ন না নিলে ত্বক শুষ্ক ও রুক্ষ্ম হয়ে যায়, ত্বকের উজ্জলতা হারায়, ত্বকের উপরিভাগ কালো হয়ে আসে এবং ত্বক ফেটে যায়। তাই আজকে আপনাদের জন্য রইল ত্বককে শুষ্কতার হাত থেকে বাঁচাবার কিছু উপায়। সতর্কতার সাথে এই উপায় গুলো ব্যবহার করলে এগুলো ত্বককে শীতের প্রকোপ থেকে বাঁচাবে।

অ্যালকালাইন যুক্ত ফেস ওয়াস ও সাবান এড়িয়ে চলুন
অ্যালকালাইন ত্বকের উপরিভাগের আদ্রর্তা দূর করে যা ত্বকের শুষ্কতার জন্য অনেকাংশে দায়ী। তাই শীতে ফেস ওয়াস ও সাবান নির্বাচন করুন অ্যালকালাইন মুক্ত। এতে ত্বকের আদ্রর্তা বজায় থাকবে ও ত্বক শুষ্ক হবে না।

গোসল ও হাত মুখ ধোয়ার কাজে গরম পানি ব্যবহার করবেন না
শীতকালে গোসল ও হাত মুখ ধোয়ার কাজে আমরা অনেকেই গরম পানি ব্যবহার করে থাকি। কিন্তু এতে ত্বকের অনেক ক্ষতি হয়। ত্বকের আদ্রর্তা হারিয়ে গিয়ে শুষ্ক হয়ে পড়ে। তাই গোসল ও হাত মুখ ধোয়ার কাজে গরম পানি ব্যবহার বন্ধ করুন। হালকা গরম বা কুসুম গরম পানি ব্যবহার করুন।

ময়েসচারাইজার ব্যবহার করুন প্রতিদিন
শুষ্ক আবহাওয়ায় ত্বককে যতটা সম্ভব আদ্র রাখতে হয়। এতে ত্বক শুষ্ক হয় না। তাই প্রতিদিন নিয়মিত ২ বার বা প্রয়োজনে ৩ বার ময়েসচারাইজার ব্যবহার করুন। ত্বকের শুষ্ক ভাব দূর হয়ে নরম ও মসৃণ হবে।

প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন
শীতে তেষ্টা একটু কম পায় বলে অনেকেই পানি কম খান। এই কাজটি করবেন না। কারণ পানি পরিমাণ মত পান না করলে শুষ্ক আবহাওয়ায় ত্বক পানিশূন্য হয়ে পরে। এতে ত্বক শুষ্ক, রুক্ষ ও নিষ্প্রাণ হয়ে পরে। তাই শীতেও ৬-৮ গ্লাস পানি পান করুন।

ত্বককে দিন পানিযুক্ত খাবার
শীত কালে ত্বকের শুষ্কতা অনেকটাই বেড়ে যায় খাদ্যাভ্যাসের কারনে। তাই ত্বকের আদ্রর্তা বজায় রাখতে পানিযুক্ত খাবার খাওয়া অনেক বেশি জরুরী। বাঁধাকপি, টমেটো, মুলা, গাজর, লাউ এবং শসা সবই শীতকালীন পানি সমৃদ্ধ সবজি। এগুলো দেহের পানির পরিমাণ ঠিক রাখে ও ত্বক শুষ্ক হওয়ার হাত থেকে বাঁচায়।

মধু ব্যবহার করুন
ত্বক যদি খুব বেশি পরিমাণে শুষ্ক হয় তবে তা দূর করতে মধুর সাহায্য নিন। এই কাজটি রাতে করলে সব চাইতে ভালো ফল পাবেন। এক টেবিল চামচ মধু হাতে নিয়ে মুখে ম্যাসাজ করুন ২০-২৫ মিনিট। পরে মুখ ধুয়ে ফেলুন পানি দিয়ে। মুখে কোনো ধরনের প্রসাধনী লাগাবেন না। সকালে উঠে সাধারনভাবে মুখ ধুয়ে ময়সচারাইজার লাগান। প্রতিদিন বাবহারে ত্বকের শুষ্কতা দূর হওয়ার সাথে সাথে ত্বক উজ্জ্বল, মসৃণ ও কোমল হবে।