শাকিবের ‘স্যাক্রিফাইস’ ইস্যুতে শাবনূর-মাহি !

শাকিব খান। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের উজ্জল নক্ষত্র। ঢালিউডের সুপারস্টার। কিং খান।বাংলাদেশের চলচ্চিত্রকে টিকিয়ে রাখার অন্যতম মহা নায়ক। তিনি ই একমাত্র সুপারস্টার যিনি ঢালিউডকে রিপ্রেজেন্ট করছেন বিদেশের মাটিতে। এ ধরণের নানান বিশেষণে আটকানো হয় নায়ক শাকিব খানকে। এসব উপাধি তিনি অর্জন করেছেন নিজের দক্ষতা দিয়েই।

তবে এতো কিছুর মাঝে বিতর্ক যেনো পিছু ছাড়ছে না এই তারকার ক্ষেত্রে।বহুবার শোনা গেছে- শাকিব খানের সঙ্গে কাজ করলে নাকি ‘স্যাক্রিফাইস’ করতে হয়। সম্প্রতি একটি জাতীয় দৈনিকে অভিনেত্রী ফারিয়া শাহরিনের এমন একটি মন্তব্যে ঝড় উঠেছে মিডিয়া পাড়ায়। পরবর্তীতে অবশ্য ফারিয়া দাবি করেছেন, তিনি নিজে এমন কোনো বাজে পরিস্থিতির মুখোমুখি হননি।

এ কথা তিনি শুনেছেন মিডিয়া পাড়ার মানুষদের মুখে।কিন্তু এই ‘স্যাক্রিফাইস’ বক্তব্যটি নিয়ে অনেক কথা রয়েছে। বিশেষ করে শাকিব খানের ব্যাপারে। শাকিব খানের সঙ্গে অনেক নায়িকাই কাজ করেছেন বা করছেন। তাদের মধ্যে রয়েছেন ঢালিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শাবনূর, মাহিয়া মাহি, মিম, সাহারা, পূর্ণিমা, পরীমনি সহ অনেকেই।

তাই বলে কি সবাই শাকিব খানের সঙ্গে কাজ করতে গিয়ে ‘স্যাক্রিফাইস’ করেছেন? এ নিয়ে চলছে জোর আলোচনা।বিষয়টি নিয়ে চিত্রনায়িকা শাবনূর বলেন, ‘শাকিব বয়স এবং ফিল্মি ক্যারিয়ারে আমার অনেক জুনিয়র। তার সঙ্গে বেশ কয়েকটি সিনেমাতে কাজ করেছি। সে অত্যন্ত ভদ্র এবং আমায়িক ছেলে। বড়দের শ্রদ্ধা এবং ছোটদের স্নেহ করতেই দেখেছি তাকে।

আমার তো তার সঙ্গে কাজ করতে গিয়ে তেমন কোনো অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হতে হয়নি। তারপরেও মানুষ মাত্রই ষড়রিপু দ্বারা কম বেশি চলিত হয়। সে হিসেবে তার মধ্যে যদি কামনা বাসনার মতো কিছু থেকে থাকে তা মানুষ হিসেবে খুবই স্বাাভাবিক।

শাবনূর আরও বলেন, ‘যে যত বড় তারকাই হোক না কেন, দিন শেষে সেও একজন মানুষ। এ নিয়ে প্রপাগান্ডা ছড়িয়ে লাভ নেই। এতে ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিরই ক্ষতি হবে। এমনিতেই আমাদের চলচ্চিত্র জগতের অবস্থা খুব একটা সুখকর নয়। তাই এমন কোনো কথা বলা উচিত নয়, যাতে সাধারণ মানুষের চোখে এই শিল্পটি হেয় হয়।

অপরদিকে কাজের অভিজ্ঞতা জানাতে গিয়ে মাহি বলেন, ‘শাকিব খানের সঙ্গে আমার খুব বেশি কাজ করা হয়নি। ‘ভালোবাসা আজকাল’ শিরোনামে একটি সিনেমাতে এক সঙ্গে কাজ করেছি। তবে তার সঙ্গে কাজ করতে গিয়ে আমাকে কোনো প্রকার তিক্ত অভিজ্ঞতা বা আপত্তিকর পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয়নি।

যদিও তার সঙ্গে কাজ করার আগে আমিও নেতিবাচক কথা শুনেছি। তবে কাজ করতে গিয়ে অভিজ্ঞতা হয়েছে সম্পূর্ণ উল্টো।’এই অভিনেত্রী আরও বলেন, ‘শাকিব খুবই সহায়তাপরায়ন শিল্পী এবং মাই ডিয়ার টাইপের একজন মানুষ। তার সঙ্গে কাজ করাটা বেশ উপভোগ করেছি। ইউনিটে তার মত কো আর্টিস্ট পাওয়া ভাগ্যের ব্যাপার। আমার তার সম্পর্কে কোনো বাজে অভিজ্ঞতা নেই।

কে তার সম্পর্কে কী বললো তাতে আমার কিছু যায় আসে না। এসব নিয়ে কিছু বলতেও চাই না।’যদিও শাকিব খান সর্বোচ্চ জুটি হয়ে কাজ করা চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসকে বিয়ে করেছেন। তবে সেই বিয়ের খবর অনেক বছরই গোপন ছিলো। প্রকাশ্যে আসতেই দুজনের মধ্যে টানাপোড়েন সৃষ্টি হয়।

যা এখন বিচ্ছেদে রুপ নিয়েছে। এ অবস্থায় বর্তমানে গুঞ্জন চলছে নতুন নায়িকা বুবলীকে নিয়ে। অনেকে বলছেন এই বুবলীর কারণেই নাকি সংসার ভাঙছে অপুর। তবে সেই কথা স্বীকার করেননি দুই তারকার কেউই। এমনকি বিচ্ছেদ হতে যাওয়া শাকিবের স্ত্রী অপুও এটি নিয়ে কোন মন্তব্য করেননি।