কুমিল্লার দেবিদ্বারে ১৪ বছরের ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা

মাহফুজ আহম্মেদ, কুমিল্লা:  কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার ৯ নং গুনাইঘর উত্তর ইউনিয়নের ধলাহাসঁ গ্রামের অষ্টম শ্রেণীতে পড়ুয়া কিশোরীকে ধর্ষনের চেষ্টা করে একই গ্রামের হাজী বাড়ির মৃত বাহারের ছেলে বখাটে আনিস।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ভিক্টিম এর পিতা জানান , বাবা আমি খেটে খাওয়া একজন গরিব মানুষ। আমার ছোট মেয়ে পারুল (ছদ্ম নাম) এইবার জে.এস.সি পরিক্ষা দিয়েছে।

গত সোমবার রাতে আমার মেয়ে বাহিরে টয়লেটে গেলে এই গ্রামের মৃত বাহার মিয়ার লম্পট ছেলে আনিস আমার মেয়েকে টয়লেটের পেছনের টিন খুলে তাকে জোর পূর্বক ধর্ষন করার চেষ্টা করে তখন আমার মেয়ে জোরে চিৎকার করলে আমি এবং প্রতিবেশীরা ছুটে যাই তখন আনিস আমাকে এবং মেয়ের চাচীকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দিয়ে আনিস দৌরে পালিয়ে যায়।

এই ঘটনা সবার মাঝে আলোচনা হলে আনিস আমার পরিবার ও আমার একমাত্র ছেলে জুয়েল কে মেরে ফেলবে । সে এলাকার সালাম ,হাশেম আঃহাকিম সহ সবাই আমাদের কে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে।

পরে আমি বিষয়টি গুনাইঘর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান খোরশেদ আলম কে জানালে তিনি আমাদের এলাকার আলী মেম্বারের কাছে দায়িত্ব দেন কিন্তু এই বিষয়ে তিনি কোনো ব্যবস্থা নেননি। এমতাবস্থায় আমরা বখাটে আনিসের ভয়ে আছি । আমি আমার কিশোরীর মেয়ের ভবিষৎ চিন্তা করে থানায় অভিযোগ করিনি।

এমন অভিযোগের ভিত্তিতে গুনাইঘর উত্তর ইউনিয়ন এর চেয়ারম্যান খোরশেদ আলমের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, বিষয়টি সত্য,মেয়ের বাবা আমাকে বিষয়টি জানিয়েছেন ,আমি তাদের কে বলেছি লিখিত অভিযোগ করতে অভিযোগের ভিত্তিতে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।