খালেদা জিয়ার রায়ের পর চৌদ্দগ্রামে আনন্দ পদযাত্রা

দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়ার রায়ের পর চৌদ্দগ্রাম উপজেলা ও পৌরসভা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দদের আনন্দ পদযাত্রা। এই আনন্দ পদযাত্রায় উপস্থিত ছিলেন চৌদ্দগ্রামের পৌরসভার মাননীয় মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক জনাব মিজানুর রহমান মিজান।

এছাড়াও রায় শোনার সঙ্গে সঙ্গে বঙ্গবন্ধু এভিনিউ ও ধানমন্ডী কার্যালয়ের সামনে থাকা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা আনন্দ মিছিল ও উল্লাস করে।  বৃহস্পতিবার যুব মহিলা লীগের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে মিছিল বের করা হয়।

এই মুহূর্তে খবর এলো খালেদা জিয়ার জেল হলো, খালেদা জিয়ার দুই গুণ দুর্নীতি আর মানুষ খুন স্লোগান দিতে দিতে নেতাকর্মীরা আনন্দ মিছিল করে।

এর আগে, ধানমন্ডীস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতির কার্যালয়ের সামনে আওয়ামী লীগের প্রচুর নেতাকর্মী সকাল থেকে জড়ো হতে থাকে। এছাড়া ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনেও নেতাকর্মীদের মহড়া দিতে দেখা গেছে।

সকাল থেকেই আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, শ্রমিক লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ধানমন্ডী ও বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে জড়ো হয়।

উল্লেখ্য, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়ে বেগম খালেদা জিয়ার ৫ বছর কারাদণ্ড ও অর্থদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত । ঢাকার ৫ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক ড. আখতারুজ্জামান এই আদেশ দেন।

এর আগে মামলার প্রধান আসামি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বৃহস্পতিবার দুপুর পৌনে ২টায় বকশী বাজারে স্থাপিত অস্থায়ী বিশেষ জজ আদালতে এসে পৌঁছান।

পরে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়াকে দুপুর ২টা ৫০ মিনিটে আদালত থেকে বের করে কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।