কাঁচকলায় সারবে সব রোগ !

কাচকলা হলো একটি গুরুত্বপূর্ণ সবজি, এটি পাকা কলা থেকে সম্পূর্ণ আলাদা, কাচা অবস্থায় গাছ থেকে কাটা কাটা বা তোলা হয়, সারাবছর বাজারে একে পাওয়া যায়, এর বিজ্ঞান সম্মত নাম হলো সুসা প্যারাডিসিকা।
পুষ্টিগুণ :পুষ্টিগুনের নিরিখে প্রতি ১০০ গ্রাম কাচা কলার মধ্যে আছে-কর্বোহাইড্রেড ১৪.০গ্রাম, প্রোটিন ১.৪ গ্রাম, ফ্যাট ০.২ গ্রাম, আশ ০.৭ গ্রাম, লোহা ৬.২৭ মিগ্রা,ভিটামিন এ ৩০ আই ইউ, অক্সালিক এসিড ৪৮০ মিগ্রা, ক্যালসিয়াম ১০ মিগ্রা,ফসফরাস ২৯ মিগ্রা, পটাসিয়াম ১৯৩ মিগ্রা, থায়ামিন .০৫ মিগ্রা, রিবোফ্ল্যাবিন .০২ মিগ্রা, ভিটামিন সি ২৪ মিগ্রা, নিকোটিনিক এসিড ০০ মিগ্রা,
উপকারিতা (Benefits) : ১) একটি কাঁচাকলা খোসা সমেত চাক চাক করে কেটে প্রতি রাতে পানিতে ভিজিয়ে রেখে পরদিন সকালে ঐ পানি পান করলে কঠিন আমাশয় রোগ নির্মূল হবে, এইভাবে একমাস খেতে হবে, ২) পেটের অসুখে, আমাশয় ও রক্ত আমাশয় রোগীকে কাচাকলা সেদ্ধ করে খাওয়ালে রোগ সারে, ৩) কলা গাছের শুকনা শেকড় গুরো করে অল্প পরিমান খেলে পিত্ত রোগ সারে, রক্ত সল্পতা বা এনিমিয়া রোগেরও এটি একটি মহৌষদ, ৪) অনেকের মতে কলা গাছের শেকড়ের রসের সঙ্গে ঘি ও চিনি মিশিয়ে খেলে প্রস্রাবের অসুখ বা মেহ রোগ সারে, ৫) কাঁচাকলা শুকিয়ে গোড়া করে প্রতিদিন অল্প পরিমানে দুধের সঙ্গে মিশিয়ে খেলে যৌন ব্যাধি ভালো হয় ও প্রস্রাবের অসুখ সারে, ৬) একেবারে কচি কলাপাতা মিহি করে বেটে দুধ মিশিয়ে ঘন ক্ষীরের মত করে খাওয়ালে মেয়েদের প্রদর রোগে উপকার হয়, ৭) এছাড়া পাকা কলাতেও রয়েছে অনেক পুষ্টিগুণ, পাকা কলা আপনার শরীরে শক্তি যোগাতে সাহায্য করে।