গোল বাতিল হওয়ায় রেফারিকে পিস্তল নিয়ে ধাওয়া

একসময়ের বিশ্বের সবচেয়ে সমৃদ্ধশালী দেশ গ্রিসে গতকাল চলছিল দুই দলের ফুটবল খেলা। টান টান উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে একটি গোল দিয়ে বসে গ্রিসের পিএওকে সালাওনিকার ফুটবলাররা। তবে দুর্ভাগ্যক্রমে রেফারির বাঁশি বেজে ওঠে। ততক্ষণে উল্লসিত দর্শকের মধ্যে নেমে আসে পিনপতন নীরবতা। এরইমধ্যে ক্রোধ সামলাতে না পেরে পিএওকের সভাপতি অস্ত্রহাতে নেমে পড়েন মাঠে।

পিএওকের সভাপতি ইভান সাভাডিস তার প্যান্টের পকেট থেকে পিস্তল বের করে রেফারিকে হামলার চেষ্টা করেন। জানা যায়, এইকে এথেন্সের বিরুদ্ধে মাঠে নেমেছিল পিএওকে। এদিকে ইভান সাভাডিস পিস্তল হাতে মাঠে নামার পরই এইকের খেলোয়াড়রা দ্রুত মাঠ ছেড়ে প্যাভিলিয়নে ফেরত আসেন। নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে আর তারা মাঠে নামেননি। ফলে বলও গড়ায়নি মাঠে।

এদিকে এমন কাণ্ডের পর অনির্দিষ্টকালের জন্য ফুটবল খেলা বন্ধ করে দিয়েছে দেশটি। শুধু তাই নয়, ঘটনার পরপরই ইভান সাভাডিসকে গ্রেফতারে মাঠে নামে পুলিশ। ফুটবলে হঠাৎ উত্তেজনা বেড়ে যাওয়ায় উপক্রীড়া মন্ত্রী জর্জ ভ্যাসিলিয়াডিস প্রধানমন্ত্রী অ্যালেক্সিস সিপ্রাসের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। এরপর প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে দেশটিতে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সব ধরণের ফুটবল ম্যাচ স্থগিত করা হয়েছে।

উপমন্ত্রী আরও বলেন, এ বিষয়ে চূড়ান্ত সূরাহা না হওয়া পর্যন্ত আর মাঠে গড়াবে না বল। আর এ ধরণের মারাত্মক ঘটনার কারণেই সরকার এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে বিবিসিকে জানিয়েছেন তিনি। এদিকে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফা এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, এ ঘটনার চূড়ান্ত বিচার না হলে গ্রিসকে সব ধরণের আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ থেকে নিবৃত্ত রাখা হবে।

সূত্র: বিবিসি