আর স্বামী-স্ত্রী নন শাকিব-অপু

গতকাল সোমবার চলচ্চিত্র তারকা দম্পতি শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের বিবাহ বিচ্ছেদ আনুষ্ঠানিকভাবে কার্যকর হয়েছে। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) পক্ষ থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) অঞ্চল ৩-এর নির্বাহী কর্মকর্তা হেমায়েত হোসেন বলেন, শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের তালাক বিষয়ে তৃতীয় ও শেষ শুনানি ছিল ১২ মার্চ।

আপস-মীমাংসার জন্য তাদের ডাকা হয়েছিল। এর আগে ১২ জানুয়ারি ও ১২ ফেব্রুয়ারি তাদের ডাকা হয়। ১২ জানুয়ারি অপু বিশ্বাস উপস্থিত ছিলেন। অন্য দুটি তারিখে তিনি আসেননি। আর শাকিব খান কোনো তারিখেই উপস্থিত হননি। তাই নিয়ম অনুসারে সময়সীমা ৯০ দিন উত্তীর্ণ হওয়ায় সালিস মামলার নিষ্পত্তি হয়েছে। গতকাল থেকে তালাক কার্যকর হয়েছে। ডিভোর্স মেনে নিয়েছেন অপু।

ঢালিউডের দর্শকনন্দিত জুটি শাকিব-অপুর দেখা হয় ২০০৬ সালে এফ আই মানিকের ‘কোটি টাকার কাবিন’ ছবির সেটে। ২০০৮ সালের ১৭ এপ্রিল সোহানুর রহমান সোহানের ‘কথা দাও সাথী হবে’ ছবিতে কাজ করার সময় অপুকে বিয়ের প্রস্তাব দেন শাকিব। ১৮ এপ্রিল শুক্রবার বিয়ে হয় তাদের। অপু বিশ্বাস থেকে হয়ে যান অপু ইসলাম খান।

কলকাতার একটি ক্লিনিকে ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর জন্ম হয় শাকিব-অপুর জুটির একমাত্র সন্তান আবরাম খান জয়ের। দীর্ঘ সময় ধরে বিয়ে-সংসার-সন্তানের বিষয়গুলো লুকিয়ে রেখেছিলেন তারা। ২০১৭ সালের ১০ এপ্রিল সন্তান নিয়ে জনসমক্ষে আসেন অপু। বিষয়টি ভালোভাবে নেননি শাকিব। একই বছরের ২২ নভেম্বর শাকিব তালাকের চিঠি পাঠান অপুকে।