শক্তভাবে পাশে দাঁড়ালে বিয়ে হতেই পারে : বাঁধন

ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী আজমেরি হক বাঁধন। অভিনয় দিয়েই তিনি দর্শকদের মন জয় করেছেন। তৈরি হয়েছে তার অগণিত ভক্ত। বর্তমানে তিনি ব্যস্ত রয়েছেন খন্ড নাটক ও ধারাবাহিক নিয়ে। ‘মেঘে ঢাকা আকাশ‘ নামে একটি ধারাবাহিক তার শুরু হয়েছে। নতুন করে আবার নিজেকে কাজের মধ্যে ব্যস্ত রাখার চেষ্টা করছেন এই অভিনেত্রী।

বাঁধন বলেন, অনেকগুলো নাটকে কাজ করছি। ‘মেঘে ঢাকা আকাশ‘ নামে একটি ধারাবাহিক শুরু হয়েছে। মাসুদ সেজানের খেলোয়াড় ও জুয়েল মাহমুদের ওয়ানওয়ে নামে আরো নতুন দুটি ধারাবাহিকে কাজ করছি। এ ছাড়া শিগগিরই কয়েকটি ঈদের নাটকের কাজ শুরু করব।

সিনেমায় কাজ করা প্রসঙ্গে বাঁধন বলেন, যখন লাক্স থেকে বের হই তখন আমি বেশ সুন্দরী ছিলাম। সেই সময় নায়করাজ রাজ্জাক, সোহানুর রহমান সোহানের ছবিতে কাজের প্রস্তাব পেয়েছি। করিনি। তখন মেডিকেলে লেখাপড়ায় সময় দিয়েছি। সিনেমার প্রতি আকর্ষণ থাকলেও সময় দিতে পারিনি।

তিনি বলেন, পরবর্তীতে জীবন আমাকে ভয়ংকর এক পরিণতির দিকে নিয়ে যায়। বিয়ের পর থেকেই আমার জীবনটা বদলে যেতে থাকে। বিষণ্নতায় দিন কাটাতাম আমি। একটা সময় সংসার ভেঙে গেল। ডাক্তারের পরামর্শে নিজেকে ভালোবাসতে ঘুরে দাঁড়ানোর যুদ্ধে যোগ দিলাম। এখনো জীবনের বহুপথ বাকি।

সেই পথে নিজেকে সুন্দর করে গড়ে তুলতে হবে। সে কারণে নিজেকে নতুন করে সাজাচ্ছি। আবার বিয়ে প্রসঙ্গে বাঁধন বলেন, সবাই আমার বিয়ে সম্পর্কে জানতে চায়। আমার জীবনের সবকিছু এখন আমার ছয় বছরের মেয়েকে ঘিরে। আমাদের দুজনের পথচলায় কেউ যদি শক্তভাবে পাশে হাঁটতে চায় বা পাশে দাঁড়ায়,  তাহলে বিয়ে হতেই পারে।

তবে দ্বিতীয়বার অনেক চিন্তাভাবনা করেই বিয়েটি করতে হবে আমাকে। হুট করে আমি কিছু করতে চাই না। বিয়ে না হলেও নতুন করে কাজ নিয়ে বেশ ভালো আছি। সামনের দিনগুলো ভালো থাকতে চাই।