মাথায় গুরুতর আঘাত পেলেন জনসন

৩৬ বছর বয়সী পেসার পাকিস্তান সুপার লিগকে ফিরিয়ে দিয়ে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। সোমবার এই অনুশীলন চলাকালেই ভয়ানক এই আঘাতের শিকার হন তিনি।

আঘাতের কথা সবাইকে জানিয়েছেন জনসন নিজেই। এ থেকেই বোঝা যাচ্ছে, বর্তমানে সুস্থই আছেন তার সময়কার বিশ্বের অন্যতম সেরা বোলার। তবে এই পেসারের আঘাতটির ধরণ ছিল গুরুতরই। দ্রুত শল্যবিদের ছুঁড়ির নিচে চলে যাওয়ায় বড় কোনো বিপদ ঘটেনি তার।

খিলে ধাক্কা লেগে মাথায় আঘাত পাওয়ার পর জনসনের খুলিতে বসে ১৬টি সেলাই। তবে অস্ত্রোপচারের ভালোই আছেন এই ফাস্ট বোলার। থাম্বস আপ চিহ্ন দেখিয়ে নিজেই পোস্ট করেছেন নিজের ছবি।

মাথায় আঘাত পেয়ে ইনজুরির শিকার হওয়ার কথা জানিয়ে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইন্সটাগ্রামে জনসন উল্লেখ করেন,‘রক্ত এবং কাঁটাছেঁড়া ভালো না লাগলে ছবিগুলো দেখবেন না!’ ছবিগুলো দেখতে অতোটা ভয়ঙ্কর না হলেও জনসনের এই কথায়ই বোঝা যাচ্ছে, ইনজুরি বেশ ভড়কে দিয়েছে তাকে। যদিও পরক্ষণেই সবাইকে স্বস্তি এনে দিয়ে জনসনের দাবি, ‘আমি সুস্থ আছি।’

আইপিএলের এবারের আসরে জনসন খেলবেন টুর্নামেন্টের একমাত্র বাঙালি দল কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে। জানুয়ারিতে হয়ে যাওয়া নিলামে ২ কোটি রুপীর বিনিময়ে তাকে দলভুক্ত করে বেশ পাল্টে যাওয়া দলটি। কলকাতার এবারের দলে এসেছে বড়সড় পরিবর্তন। আগের স্কোয়াড প্রায় পাল্টে ফেলা হয়েছে, পরিবর্তন এসেছে অধিনায়কত্বেও। সাবেক অধিনায়ক গৌতম গম্ভীর এবার দলেই নেই। তার জায়গায় দলের নেতৃত্বের ভার বর্তেছে দীনেশ কার্তিকের ঘাড়ে।

উল্লেখ্য, ১৯৮১ সালে কুইন্সল্যান্ডে জন্ম নেওয়া মিচেল জনসন অস্ট্রেলিয়া জাতীয় দলের হয়ে খেলেছেন ৭৩টি ওয়ানডে, ১৫৩টি টেস্ট ও ৩০টি টি-২০। জাতীয় দলের জার্সি তুলে রাখলেও ঘরোয়া লিগগুলোতে এখনও খেলে যাচ্ছেন দাপটের সাথে।—bdcrictime