৫৩তম জন্মদিনে ভক্তদের উপহার দিলেন আমির

বলিউডকে পারফেকশনের মানে বুঝিয়েছেন। দেখিয়েছেন বয়স তো কেবল একটি সংখ্যামাত্র। নিষ্ঠা মানুষকে জীবনের যে কোনও ‘দঙ্গল’-এ জয়ী করতে পারে। অ্যাওয়ার্ডের মুখাপেক্ষী কোনওদিন ছিলেন না। ছিল নতুন নতুন কাজ করার খিদে। অন্যরকম কাহিনি দর্শকদের সামনে তুলে ধরার খিদে।

এই খিদেই তাকে চকোলেট বয় ইমেজ থেকে পোড় খাওয়া অভিনেতা করে তুলেছে। এমন অভিনেতা যিনি পঞ্চাশ পেরিয়েও ক্যামেরার সামনে এসে ‘ঠাগস অফ হিন্দোস্তান’ হয়ে এভাবে চমকে দিতে পারেন।চমক যে এখনও আরও বাকি রয়েছে, সে ইঙ্গিতই বুধবার দিলেন আমির খান।

এই জন্মদিনে নিজেই দর্শকদের অনবদ্য উপহার দিলেন মিস্টার পারফেকশনিস্ট। ৫৩তম জন্মদিনে ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল খুললেন অভিনেতা। প্রথম পোস্টেই নিজের শেয়ার করেছেন মায়ের ছবি।ছোট থেকেই মায়ের খুব কাছের আমির। পড়াশোনার চেয়ে খেলাধুলাতেই আগ্রহ ছিল তার বেশি।

রাজ্যস্তরের টেনিস চ্যাম্পিয়ন বলিউডের মিস্টার পারফেকশনিস্ট। কিন্তু পুরো পরিবার বলিউডের সঙ্গে যেখানে ওতপ্রোতভাবে জড়িত, তিনি এ মায়া থেকে তিনি দূরে থাকেন কেমনে!  বাড়ির অমতেই থিয়েটারে যোগ দেন। কাকা নাসির হুসেনের সহ-পরিচালক হিসেবে কাজ করেন। সেই সূত্রেই প্রাপ্তি ‘ক্যায়ামত সে ক্যায়ামত তক’।

বলিউডে শুরু আমির জমানা। যা আজও স্বমহিমায়  বর্তমান।