আশা জাগিয়েও স্বপ্ন পূরণ হলো না বাংলাদেশের

সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে ১৭ রানে হেরেছে বাংলাদেশ। রানের ব্যবধান বাংলাদেশের লড়াইটা বোঝাতে পারছে না। পারছে না মুশফিকের অপরাজিত ৭২ রানের ইনিংসের বীরত্বও। পরাজিতের জন্য যে কাব্যগাথা তো দূরের কথা, কোনো সান্ত্বনাও বরাদ্দ নেই!

নিদাহাস ট্রফির নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে আজ ভারতের বিপক্ষে মাঠে নামে টাইগাররা। কলোম্বতে ম্যাচটি শুরু হয় বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায়। টসে জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল বাংলাদেশ। ফলে প্রথমেই ব্যাটিং করে ভারত।

ওপেনিং ধাওয়ান-রুহিতের জুটি ভেঙ্গে দিলেন রুবেল। ১০ম ওভারে এসে মিডেল স্ট্যাম্প উড়িয়ে ফেললেন রুবেল। আর উইকেট পেলেন শিখর ধাওয়ানকে। পরে আবারো রায়নার উইকেট পান রুবেল। ভারত ২০ ওভার খেলে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৭৬ রান সংগ্রহ করে। ফলে বাংলাদেশকে জিতার জন্য প্রয়োজন ১৭৭ রান।

জয়ের জন্য প্রথমেই ব্যাটিংয়ে নামেন ওপেনিং জুটি তামিম-লিটন দাস। ভালভাবেই এগিয়ে যাচ্ছিল তামিম-লিটন। হিট কয়েকটা সর্ট খেলে আউট হয়ে যান লিটন দাস। পরে তামিমের সঙ্গে আসেন সৌম্য। সৌম্য ভাল করতে পারেন নি। লিটনের পর সাজঘরে ফিরেন সৌম্যও। পরে তামিমও টিকতে পারেন নি। তাই রানের চাকাটাও ঘুরেনি। তবে মুশফিকের অপরাজিত ৭২ রানের ইনিংসের বীরত্বের। অনেকদিন রান পাচ্ছিলেন না সাব্বির। আজ কিছু রানও দেখা গেল সাব্বিরের ব্যাটে।

মুশফিক-সাব্বির তবু পথ হারাতে দেননি দলকে। দুজনের ব্যাটে রানরেটটাও নিয়ন্ত্রণে ছিল বাংলাদেশের। ১৩তম ওভারেই ১০০ ছুঁয়ে ফেলল বাংলাদেশ। ৭ ওভারে ৭৩ রান, বাংলাদেশ কী পারবে?

এমন সময়ই পথ হারাল বাংলাদেশ। ১৪ থেকে ১৬—এই তিন ওভারে এল ১৬ রান। ৪ ওভারে ৫৭ রানের কঠিন সমীকরণে পড়ে ১৭তম ওভার শুরু হলো। দ্বিতীয় বলে চার মেরে চতুর্থ বলেই আউট সাব্বির। বাংলাদেশের হার কি লেখা হয়েই গেল? হ্যা, শেষ পর্যন্ত হেরেই গেল বাংলাদেশ।