প্রায় ৮মিটার লম্বা সাপের মোকাবিলায় গ্রামবাসীরা, কী হল পরিণতি

এই দৈত্যাকার সাপের ছবি দেখলেই হাড়হিম হয়ে যায়। কিন্তু এই গ্রামবাসীদের কী হল! যেখানে জলঢোঁড়া দেখলেই মানুষের গা শিউরে ওঠে, সেখানে এক দৈত্যাকার অজগরকে বাগে আনল ইন্দোনেশিয়ার পেকানবারুর বাসিন্দারা। শুধু তাই নয়, অজগরটিকে পাকড়াও করে তার মাংস দিয়ে বনভোজন সারলেন বাসিন্দারা।

এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুযায়ী, এই সাপটি দৈর্ঘ্যে ৭.৮ মিটার বা ২৫.৬ ফুট লম্বা। সাপটি এতই বিশাল যে, তার হাঁ-তে ঢুকে যেতে পারে একসঙ্গে আস্ত দুটো মানুষ।

শনিবার সুমাত্রা দ্বীপে এই অতিকায় অজগরের মুখোমুখি হন নিরাপত্তা রক্ষী রবার্ট নবাবন। সংবাদমাধ্যমের কাছে এমনই জানান স্থানীয় পুলিশ প্রধান সুতার্জা। তাঁর কাছ থেকেই জানা যায় যে, রবার্ট সাপের মাংস খেতে খুব ভালবাসেন। সেই জন্য এই সাপটিকেও তিনি মারতে যান। কিন্তু সাপটি আকারে দৈত্যের মতো হওয়ায় উল্টে রবার্টের উপরেই সে চড়াও হয় এবং তাঁর হাতে কামড়ে দেয়।

রবার্ট গুরুতর চোট পাওয়ার পরে হাসপাতালে গিয়ে ভর্তি হন। কিন্তু তার পরেও অন্য কয়েকজন গ্রামবাসীর উপরে হামলা করে এই দৈত্যাকার সাপ। তখনই এক গ্রামবাসী গাছের গুঁড়ি দিয়ে আক্রমণ করেন। অবশেষে সাপটিকে মেরে তার মাংস দিয়ে বনভোজন করেন গ্রামবাসীরা।

ইন্দোনেশিয়া এবং ফিলিপিনসে প্রায়ই বিশাল অজগর দেখা যায়। মার্চ মাসে ইন্দোনেশিয়া থেকে এক কৃষক নিখোঁজ হয়ে যান। পরে তার দেহ এরকমই এক বিশাল সাপের পেট থেকে উদ্ধার করা হয়। সূত্র: এবেলা।