পাবনায় ‘সমকামী’ বিয়ে নিয়ে তোলপাড়!

পাবনার চাটমোহর উপজেলায় সমকামী বিয়ে নিয়ে ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। সোমবার (২ এপ্রিল) দিবাগত রাতে এই বিয়ের ঘটনা ঘটে।

মঙ্গলবার (৩ এপ্রিল) এ ঘটনায় এলাকাবাসী বিষয়টি জানতে পেরে সকালে বিয়ে বাড়িতে চড়াও হলে পুলিশ ঘটনাস্থলে হাজির হয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। এ সময় পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এক যুবককে আটক করেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বিলচলন ইউনিয়নের বোঁথর গ্রামের রাম সরকারের ছেলে গগন (২১) এর সাথে ধুমধাম করে সোমবার রাতে বিয়ে হয় একই উপজেলার ফৈলজানা ইউনিয়নের হাবিল উদ্দিনের ছেলে আলামিনের (১২)।

বিষয়টি সকালে এলাকাবাসী টের পেয়ে বোঁথর রামের বাড়িতে চড়াও হয়। পরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। এ ঘটনার পর এলাকাবাসীর মুখে মুখে ঘটনাটি ছড়িয়ে পড়লে পুরো উপজেলা জুড়ে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।

সমকামী গগন জানান, কিছুদিন পূর্বে বাবা (রাম) অসুস্থ হলে মা (গোপালী সরকার) বাবার সুস্থতা কামনা করে পূজা দিতে চেয়েছিলেন। অপারেশন করার পর বাবা সুস্থ হলে আর পূজা দেয়া হয়নি। গত এক সপ্তাহ আগে পূর্ব পরিচিত আলামিন আমাদের বাড়িতে এসে পূজা কেন দেয়া হয়নি জানতে চায়। এ সময় আলামিনের কথায় বাবা-মা হতবাক হয়ে যান এবং এর মধ্যে বাবা (রাম সরকার) স্বপ্নে দেখেন আলামিনের সাথে আমাকে শিব-পার্বতী সাজিয়ে বিয়ে দিলে পরিবারের কল্যাণ হবে। এরপরেই সোমবার (২ এপ্রিল) রাতে বাবা আলামিনের সাথে আমার বিয়ে দেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এসএম আহসান হাবীব জানান, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রাম সরকারকে আটক করা হয়েছে। আলামিনকে উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে এবং তার পরিবারকে খবর দেয়া হয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

চাটমোহর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সরকার অসীম কুমার জানান, সমকামী বিয়ের কোন বৈধতা নেই। এ ব্যাপারে থানার মাধ্যমে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সূত্র: বিডি২৪লাইভ