সাম্পাওলিকে ‘প্রতারক’ বললেন ম্যারাডোনা

আর্জেন্টিনাার বর্তমান কোচ জোর্জে সাম্পাওলির সঙ্গে যেন সাপে-নেউলে সম্পর্ক কিংবদন্তি ফুটবলার দিয়েগো ম্যারাডোনার। আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের কোচ হতে পারেননি বলে ম্যারাডোনা সমস্ত দোষ চাপিয়ে দেন সাম্পাওলির ওপর। এমনকি সাম্পাওলি তাকে ভুলে গেছেন। এই অভিযোগ দিয়েগো ম্যারাডোনার।

সম্প্রতি প্রীতি ম্যাচে স্পেনের কাছে ৬-১ গোলের বিশাল ব্যবধানে পরাজয়ের পর দীর্ঘদিনের অভ্যাসমতো আবারও সাম্পাওলির সমালোচনায় মুখর হয়ে ওঠেন ম্যারাডানা। শুধু সমালোচনা করাই নয়, তিনি সাম্পাওলিকে একজন ‘প্রতারক’ হিসেবেও চিহ্নিত করলেন।

একই সঙ্গে জানিয়ে দিলেন, কোচের দায়িত্বে তিনি সাম্পাওলির ওপর কিভাবে আস্থা রাখতে পারেন না।
সিএনএনের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে ম্যারাডোনা সাম্পাওলির সমালোচনা করে বলেন, ‘অনেকগুলো সহযোগি অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে সে (সাম্পাওলি) আর্জেন্টিনা জাতীয় দলে প্রবেশ করেছে।

আর দলের সদস্যদের এটা বোঝানোর চেষ্টা করছে যে, বলটা হলো গোল।’সাম্পাওলির ফুটবলজ্ঞান নিয়ে প্রশ্ন তুলে ম্যারাডোনা বলেন, ‘এসবই আমাকে দেখিয়ে দেয় যে, তিনি কতোটা ভুল। আমরা যারা ফুটবল থেকে (কোচিংয়ে) এসেছি, তাদের কখনও কেউ সাম্পাওলিকে একটি গোলও করতে দেখিনি।

কিংবা কেউ শোনেনি যে, সাম্পাওলি কখনো একটিও গোল করতে পেরেছেন।’তাদের নিজেদের প্রতি সম্মান দেখানো সাম্পাওলির কর্তব্য বলেও মন্তব্য করেন ম্যারাডোনা। তিনি বলেন, ‘আমরা যা রেখে এসেছি (ফুটবল ক্যারিয়ারে) এবং আর্জেন্টিনা জাতীয় ফুটবল দলের হয়ে যা করে এসেছি, তার প্রতি সাম্পাওলির সর্বোচ্চ সম্মান দেখানো উচিৎ।’

এরপরই ম্যারাডোনা মন্তব্য করেন, ‘সাম্পাওলি আমার সঙ্গে প্রতারণা করেছে।’ কিভাবে? সেটাও জানালেন ম্যারাডোনা, ‘যখন আর্জেন্টিনা ডেভিস কাপ জিতেছিল, সে আমাকে বলেছিল যে, আমাকে সেভিলেতে সম্মান জানাতে চায়। আমি তখন তাকে বলেছিলাম, ওই সময় তার সঙ্গে ফুটবল নিয়ে কথা বলতে চাই।’

তিনি আরও বলেন,‘ তার মধ্যে অন্য চিন্তা কাজ করছে। সে যেন আমাকে অন্যত্র ছুঁড়ে ফেলেছে। সে আমার সঙ্গে কথা বলতে রাজি নয়। তার ইচ্ছা শুধু, কিভাবে জাতীয় দলের আরও কাছাকাছি যাওয়া যায়।’