চুলের যত্নে রোজমেরির কার্যকরী ২ টি ব্যবহার

চুলের পরিচর্চায় শুধু শ্যাম্পু-কন্ডিশনারই যথেষ্ট নয়। সপ্তাহে বা ২ সপ্তাহে একটি হেয়ার প্যাক বা হেয়ার রিঞ্জ ব্যবহার করা আবশ্যক। সেই সাথে গরম তেল মালিশ করা, শ্যাম্পু করার আগে তেল ব্যবহার করা তো আছেই। রোজমেরি এমন একটি হার্ব, যা চুলকে সুস্থ করে, চুলের গোড়া মজবুত করে ও চুল পড়া কমাতে পারে ৩ গুণ পর্যন্ত। আজ জানাবো কেমন করে রোজমেরির সাহায্যে চুল চর্চা করবেন।

(১) রোজমেরি হেয়ার রিঞ্জ

যা যা লাগবে-

শুকনো রোজমেরি – ২ টেবিল চামচ, সাশ্রয়ী মূল্যে রোজমেরি পেয়ে যাবেন এখানে ।
ডিস্টিলিড (পাতিত) পানি- ২ কাপ, কোথায় পাবেন? ফার্মেসীর দোকানগুলোতে। না পেলে মিনারেল ওয়াটার বা ট্যাপের পানি হলেও হবে।
স্টীলের পাত্র (অ্যালুমিনিয়াম ছাড়া অন্য যে কোন)
ছাঁকনি
সংগ্রাহক পাত্র (প্লাস্টিক হলে ভাল)
যেভাবে তৈরি করবেন-

– চুলায় পাত্র টি দিয়ে তাতে পানি গরম হতে দিন।
– এবার শুকনো রোজমেরি গুড়া দিয়ে দিন।
– একটু নেড়ে নামিয়ে ফেলুন এবং ৩০ মিনিট অপেক্ষা করুন যাতে রোজমেরি এক্সট্রাক্ট পানিতে পুরোপুরি মিশে যায়।
– এবার ছাঁকনি দিয়ে ছেকে পাত্রে সংগ্রহ করুন।

ব্যবহার বিধি

– অন্য বারের মতই চুলে শ্যাম্পু ও কন্ডিশনিং করুন।
– এবার (বড় চুলে) এক কাপ রোজমেরি পোশনের সাথে ১ কাপ পানি মেশান। পুরো মিশ্রণটি চুলে ঢেলে নিন।
– আর চুল ধোয়ার দরকার নেই। টাওয়েল ড্রাই করুন।

(২) রোজমেরি হেয়ার ওয়েল

যা যা লাগবে

শুকনো রোজমেরি ১ চা চামচ, কোথায় পাবেন? পেতে ক্লিক করুন এই লিংকে ।
নারিকেল তেল ১ টেবিল চামচ
অলিভ ওয়েল ১ টেবিল চামচ
আমন্ড ওয়েল ১ চা চামচ
যেভাবে তৈরি করবেন-

– ওভেনে বা চুলায় প্রথমে তেলগুলোকে হালকা গরম করে নিন।
– এবার রোজমেরি গুড়া মেশান।
– ১-২ মিনিট পর নামিয়ে ফেলুন।

ব্যবহার বিধি

– হালকা গরম থাকতেই ব্যবহার করুন।
– শ্যাম্পুর ২ ঘন্টা আগে বা আগের দিন রাতে হালকা হাতে সম্পূর্ণ স্ক্যাল্প ও চুলে মালিশ করে করে লাগিয়ে রাখুন।

আশা করি রোজমেরির এ দুটি ব্যবহারে আপনারা সবাই নিশ্চয়ই উপকৃত হবেন। ব্যবহার করে জানাতে ভুলবেন না যেন। ভালো থাকুন সকলে।