রসালো ফল তরমুজের যত গুণ

গ্রীষ্মকালে শরীর ঠাণ্ডা রাখতে তরমুজের জুড়ি নেই। এতে প্রচুর পরিমাণে জলীয় অংশ আছে, যা দেহের পানির চাহিদা পূরণ করতে সহায়তা করে। তাই গ্রীষ্মকালের খাদ্যতালিকায় তরমুজ রাখা উচিত। তরমুজের কিছু গুণ নিয়ে আজকের টিপস।

পুষ্টিগুণ

তরমুজে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এবং খনিজ পদার্থ আছে, যা শরীরের জন্য খুবই উপকারী। এর পটাশিয়াম শরীরে ফ্লুইড ও মিনারেলসের মধ্যে ভারসাম্য বজায় রাখতে সাহায্য করে।

ওজন কমায়

খুব কম পরিমাণে ক্যালরি আছে তরমুজে। আর তাই তরমুজ খেলে পেট ভরে যায়। কিন্তু সে অনুযায়ী তেমন কোনো ক্যালরি শরীরে প্রবেশ করে না। ফলে তরমুজ খেয়ে পেট পুরে ফেললেও ওজন বাড়ার শঙ্কা থাকে না।

ক্যান্সার প্রতিরোধ

তরমুজে লাইকোপিন নামে একটি উপাদান আছে; যা প্রোটেস্ট ক্যান্সারের ঝুঁকি কমিয়ে দেয়। এ ছাড়া তরমুজ অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের ভালো উৎস। এটি ক্যান্সার সৃষ্টির জন্য দায়ী কোষগুলোকে নির্মূল করতে সহায়তা করে।

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ

তরমুজ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। আবার ধমনীর নানা সমস্যা সমাধানেও ভূমিকা রাখে এটি।

প্রদাহ নাশক

তরমুজে ফ্ল্যাভোনয়েড, ক্যারটিনয়েড, ট্রিটেপেনইডিস ও ফেনোলিকের মতো যৌগ আছে। এগুলো শরীরের যেকোনো প্রদাহ কমাতে সহায়তা করে। আবার অ্যান্টিঅক্সিডেন্টসমৃদ্ধ তরমুজ খেলে স্ট্রেসজনিত অসুস্থতাও কমে যায়।

চোখের উপকার

নিয়মিত তরমুজ খেলে চোখ ভালো থাকে এবং চোখের নানান সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। ক্যারটিনয়েড রাতকানা প্রতিরোধেও কার্যকরী ভূমিকা রাখে।

সূত্র: কালের কন্ঠ