মিল্ক বিউটি তামান্না !

তামান্না ভাটিয়া। সিনেভক্তদের কাছে বেশ পরিচিত একটা নাম। বিশেষ করে বাহুবলী সিরিজের ছবিগুলো যারা দেখেছেন তাদের কাছে খুবই পরিচিত নাম তামান্না। বহু ব্যবসা সফল ছবির এ নায়িকার নাম তামান্না ভাটিয়া হলেও অনেকে তাম্মি, মিল্ক বিউটি নামেও ডাকেন।দোহারা গড়নের এ অভিনেত্রী যেমন রোমান্টিক দৃশ্যে অভিনয়ে ওস্তাদ, তেমনি অ্যাকশন দৃশ্যেও। উচ্চতা ৫ ফুট ৫ ইঞ্চি।

মুম্বাইয়ে জন্ম নেয়া এ তামান্না পড়াশোনা করেছেন মুম্বাইতেই। বাবা সানতোশ ভাটিয়া, মা রজনী ভাটিয়া। তার এক ভাই আনান্দ ভাটিয়া।মাত্র ১৩ বছর বয়সে স্কুলের একটি অনুষ্ঠানে অভিনয়ের মাধ্যমে শুরু হয় তার অভিনয় জীবন। ২০০৫ সালে চান্দ সা রোশনের ‘চেহরা’ ছবির মধ্য দিয়ে বলিউডে পা রাখেন।

একই বছরে তেলেগু ও তামিল ছবিতে কাজ শুরু করেন। তবে এসব কিছুর আগে ইন্ডিয়ান আইডল-১ বিজয়ী অভিজিত সাওয়ান্তের ‘আপ্কা অভিজিত’ অ্যালবামের ‘লাফ্জো মে’ শিরোনামের একটি গানে তাকে মডেল হিসেবেও দেখা গেছে।একই বছরে তেলেগু ছবি ‘শ্রী’ দিয়ে প্রথমবার দক্ষিণ ভারতীয় চলচ্চিত্রে যাত্রা শুরু তার।

পরবর্তী বছর তিনি তার প্রথম তামিল ছবি ‘কেদি’তে নাম লিখান তার অভিনীত সবচেয়ে আলোচিত ছবি ‘বাহুবলী’। এ সিরিজের দ্বিতীয় ছবিটি ভারতীয় ছবির ইতিহাসে রেকর্ড তৈরি করেছে। অভিনয়শৈলীর জন্য কনফেডারেশন অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যাক্রিডিশন কমিশন (সিআইএসি) তাকে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি প্রদান করে।

সম্প্রতি জি আপ্সরা অ্যাওয়ার্ডে ‘শ্রীদেবী পুরস্কার’ পেয়েছেন তিনি। এবার দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কার পাচ্ছেন এ অভিনেত্রী। এ প্রসঙ্গে এক বিবৃতিতে তামান্না বলেন, “ভারতীয় সিনেমায় দাদাসাহেব ফালকের অবদান জানতে জানতে বড় হয়েছি।এ ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে পুরস্কার পাওয়া অত্যন্ত সম্মানের বিষয়।

আর সেটা এবার আমার জন্য। সত্যিই আমি গর্বিত। এ অর্জন সারা ভারতবাসীর।”আগামী ২১ এপ্রিল এ পুরস্কার দেবে দাদাসাহেব ফালকে ফাউন্ডেশন। ‘বাহুবলী : দ্য বিগিনিং’ সিনেমার জন্য এ পুরস্কার পাচ্ছেন তামান্না।এ ছাড়াও বর্তমানে তেলেগু ভাষার ‘না নুভে’ সিনেমার শুটিং নিয়ে ব্যস্ত এ নায়িকা।

বলিউডের ‘কুইন’ সিনেমার তেলেগু রিমেকেও দেখা যাবে তাকে।বিয়ে নিয়ে অনেক গুঞ্জন শোনা গেলেও এখনও সে পথে পা মাড়াননি এ নায়িকা। মাঝে বাহুবলীর নায়ক প্রভাসের সঙ্গে মন দেয়া-নেয়ার গুঞ্জন রটলেও সেটা ধোপে টেকেনি।কারণ প্রভাসের হৃদয় দখল করে আছেন আরেক দক্ষিণী নায়িকা আনুশকা শেঠী।

বর্তমানে তামান্না ছবিপ্রতি সম্মানী নিচ্ছেন প্রায় দেড় কোটি টাকা।