ঈদ সালামির জন্য দুলাভাইদের অপেক্ষায় থাকতাম : বুবলি

সময়ের আলোচিত নায়িকা শবনম বুবলি। একের পর এক সিনেমা করে হিট। এত অল্প সময়ে এতগুলো দর্শকপ্রিয় চলচ্চিত্র উপহার দেওয়া দেশের আর কোনো নায়িকার পক্ষে সম্ভব হয়েছে কি-না ভেবে দেখতে হবে। সংবাদ পাঠিকা থেকে চলচ্চিত্রে আসা এ সুদর্শনীর গুণ শুধু অভিনয়ে-ই সীমাবদ্ধ নয়। তার রান্নারও প্রশংসা আছে। ঈদের তার বিশেষ রেসিপির জন্য মুখিয়ে থাকেন পরিবার ও স্বজনরা। এমনটিই জানালেন বুবলি।

শুধু রান্না নয়, ঈদ কিভাবে কাটে, শৈশবের ঈদ, বিশেষ এই দিনটিতে সাজগোঁজ, প্রস্তুতি ও পরিকল্পনার কথা একুশে টিভি অনলাইনকে জানিয়েছেন ‘বসগিরি’ সিনেমার এ নায়িকা। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন শাওন সোলায়মান। তিন পর্বের সাক্ষাৎকারের দ্বিতীয় পর্ব আজ তুলে ধরা হলো-

সারা বছর তো কাজেই ডুবে থাকেন। ঈদের সময়টা আপনি কীভাবে উপভোগ করেন? এই দিনের প্ল্যানে কী কী থাকে আপনার?

বুবলিঃ ঈদের দিনের থেকে ঈদের আগের দিন নিয়ে আমার অনেক প্ল্যান থাকে। ওইদিনটায় ব্যস্ততা একটু বেশিই থাকে। ঈদের দিন আসলে তো মনে হয় চলেই গেল। ঈদের আগের দিন যেটা হয় আমরা বোনেরা মিলে মেহেদী দিই। ঈদের দিনের শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি চলতে থাকে।

আর ঈদের দিনের কথা বললে এই দিন মূলত আমার বাসাতেই থাকা হয়। যত কাজই থাকুক না কেন আমি চাই পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে বেশি পছন্দ করি। আরেকটা ব্যাপার যে, আগে যেটা হতো ঈদের জন্য নতুন জামা কিনতাম, সেগুলো লুকিয়ে রাখতাম। এ ব্যাপারগুলো এখন আর হয় না। এখন তো কাজের জন্যও আমাদের প্রায়ই শপিং করতে হয়। তাই লুকিয়ে রাখার সেই ব্যাপারগুলো নেই।

তবুও ঈদের দিন তো একটা নতুন জামা পরতেই হয়। ঈদের দিন তাই চাই খুব লাইট কালারের (হালকা রঙের) কোন পোশাক পরতে যেটা আরামদায়ক হবে। আর দুপুরের পর থেকে বেশ গর্জিয়াস জামাকাপড় পরা হয়।

এছাড়া এবারের ঈদে একুশে টেলিভিশনের বিশেষ অনুষ্ঠান ‘স্টার কুইজে’ অংশ নেব। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করবেন দেবাশীস বিশ্বাস আর প্রযোজন করবেন মাসুদুজ্জামান সোহাগ।

ঈদে রান্না ঘরে যান?

বুবলিঃ রান্না করা আমার খুব পছন্দের একটি বিষয়। আমার মনে হয় একটি মেয়ের আসল সৌন্দর্য থাকে তার রান্নার হাতের মধ্যে। আমি যেহেতু ছোট তাই আম্মু রান্না করতে দেন না। তবে ঈদে অন্তত কিছু না কিছু আমার রান্না করা চাই-ই চাই।

এবারের ঈদে কী রান্না করবেন?

বুবলিঃ আমার এবার পরিকল্পনা আছে গরুর কালাভুনা রান্না করার। এটার রেসিপি আমার বড় বোনের কাছ থেকে শিখেছি। গরুর মাংস আর ঝাঁল; দুটোই আমার বেশ পছন্দের। আমার রুমের বারান্দায় বোম্বাই মরিচের দুই-তিনটা গাছ আছে। আর ফিন্নি রান্না করব। বলতে পারেন ঝাল আর মিষ্টির ভালো একটা কম্বিনেশন থাকবে।

এখনকার ঈদে কী করা হয়? সালামি দেন নাকি সালামি নেন?

বুবলিঃ খুব সুন্দর একটা প্রশ্ন করেছেন। সালামি নিয়ে অনেক ইতিহাস আছে। আমরা চার ভাই বোন। দুই বোন বড় আর আমার ছোট একটা ভাই আছে। তো ছোটবেলা থেকেই সালামি পেয়ে আসছি। বড়দের সালাম করতাম, সালামি পেতাম। যাই পাই তাই একটা মজা ছিল। তো আমার বড় দুই দুলাভাই একটা ট্রিকস করেছেন। সেটা হচ্ছে যে, ওনারা ঘোষণা দিয়েছেন যে, যারা আগে তাদের সালাম করবে তারা সালামি বেশি পাবে। তো আমি আর আমার ছোট ভাই যেটা করতাম সকাল থেকেই দুলাভাইদের জন্য দরজার কাছে অপেক্ষা করতাম। কারণ তারা আসলেই আগে সালাম করতে পারলেই সালামি বেশি পাওয়া যাবে। এখন যেটা হয় সালাম করি আবার সালামি-ও দিতে হয়। আত্মীয়স্বজনের মধ্যে ছোট বাচ্চারা আছে। ওদেরকে দিই। এটা অনেক মজার।

ব্যক্তি বুবলিকে নিয়ে কিছু আলাপ করি। আপনি এখনও পড়াশুনা করছেন। সামনের পরিকল্পনা কী?

বুবলিঃ আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এমবিএ ফার্স্ট সেমিস্টারের পড়ছি। এটা শেষ করার ইচ্ছা আছে। কিন্তু আমাদের যেভাবে কাজ করতে হয় তাতে পড়ালেখাটা ঠিক নিয়মিত না। আপনি হয়তো জানেন যে, ঢাবিতে ক্লাসে নির্দিষ্ট পরিমাণ উপস্থিতি না থাকলে ফাইনাল পরীক্ষা দিতে দেয় না। সেকারণে যেটা করি যখনই ব্যস্ততা কম থাকে তখন টানা একটা সেমিস্টার শেষ করে ফেলি।

ঈদে আপনার একাধিক সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে। হলে যাবেন?

বুবলিঃ জ্বী, হলে যাব। গত কয়েক বছর ধরে যেটা হচ্ছে ঈদে যেহেতু সিনেমা মুক্তি পাওয়ার একটা ব্যাপার থাকে সেহেতু বেশ উত্তেজনা কাজ করে। পাশাপাশি আবার একটা চ্যালেঞ্জিং ব্যাপার যে দর্শকেরা কেমন প্রতিক্রিয়া দিচ্ছে সেটি নিয়ে। অনেকটা পরীক্ষার ফলাফল পাওয়ার মতো। সারা সময় যে শ্যুটিং এ কষ্টটা আমরা করি তা দর্শকদের ভালো লাগছে এটা দেখতে পারলে খুব ভালো লাগবে। নিজের কাজকে সার্থক মনে হবে। আর দর্শকদের প্রতিক্রিয়া দেখার জন্য হলে যাওয়ার থেকে ভালো কোন উপায় নেই।-একুশে টিভি অনলাইন