ধাওয়ান বুঝিয়ে দিলেন রশিদ-মুজিব বাঘ-ভালুক নয়!

পেশাদার দলের সামনে পড়লে কী অবস্থা হতে পারে তা হাড়ে হাড়ে টের পেলেন আফগানিস্তানের দুই স্পিন সেনসেশন রশিদ খান এবং মুজিব জারদান। এই কদিন আগেই এই দুজনের ঘূর্ণির সামনে অসহায় আত্মসমর্পণ করে হোয়াইটওয়াশের স্বাদ নিয়েছে বাংলাদেশ। কিন্তু ভারতের বিপক্ষে আজ থেকে শুরু হওয়া অভিষেক টেস্টে পাত্তাই পেল না আফগানরা। বৃষ্টিবিঘ্নিত প্রথম দিনে খেলা বন্ধ হওয়ার আগে শিখর ধাওয়ান আর মুরালি বিজয়ের সেঞ্চুরিতে ১ উইকেটে ২৬৮ রান তুলেছে স্বাগতিক ভারত।

ব্যাঙ্গালুরুর চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে আজ বৃহস্পতিবার শুরু থেকেই আগ্রাসী শিখর ধাওয়ান চড়াও হন দুই স্পিনার রশিদ খান এবং মুজিব উর রহমানের ওপর। অন্যদিকে একটু ধীরস্থিরভাবে খেলছিলেন মুরালি বিজয়। ৮৭ বলে ১৮টি চার ও ৩টি ছক্কায় প্রথম সেশনেই সেঞ্চুরি পূরণ করে ইতিহাসে জায়গা করে নেন ধাওয়ান। তিনিই প্রথম ভারতীয় ব্যাটসম্যান, যিনি প্রথম দিনে লাঞ্চের আগেই তিন অংক স্পর্শ করেছেন। টেস্টে তার এটি দ্বিতীয় দ্রুততম সেঞ্চুরি। শেষ পর্যন্ত ইয়ামিনের শিকার হয়ে থামে তার ৯৬ বলে ১০৭ রানের ইনিংস।

দিনের প্রথম সেশনে একশোর বেশি রান করা ক্রিকেটারের সংখ্যা নেহাৎ কম নেই। তবে প্রথম দিনের প্রথম সেশনে সেঞ্চুরি করা ষষ্ঠ ক্রিকেটার হলেন ধাওয়ান। এই রেকর্ডে তার সঙ্গী হলেন ট্রাম্পার, ম্যাকার্টনি, ব্র্যাডম্যান, মজিদ খান এবং ডেভিড ওয়ার্নার। লাঞ্চের আগেই নিজের সেরা পাঁচ বোলারকে ব্যবহার করেন স্তানিকজাই। তবে কোনো কিছুই প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে পারেনি ধাওয়ান-বিজয়ের ব্যাটিংয়ে। অন্যপ্রান্তে থাকা মুরালি বিজয় সতর্ক ব্যাটিংয়ে ১৪৩ বলে তিন অংক স্পর্শ করেন। বৃষ্টি নামার আগে তিনি অপরাজিত আছেন ১৪৮ বলে করা ১০৩ রানে।

সূত্র: কালের কণ্ঠ অনলাইন।