গলোভিনের নির্ভুল নিশানা তাক লাগালো বিশ্বকে

নিজেদের মাটিতে বিশ্বকাপে শুভসূচনা করলো রাশিয়া। আসরের উদ্বোধনী ম্যাচে উড়ন্ত জয় পেয়েছে তারা। মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে সৌদি আরবকে ৫-০ গোলে বিধ্বস্ত করেছে স্বাগতিকরা। রাশিয়ার হয়ে জোড়া গোল করেছেন চেরিশেভ।

ফ্রি কিক থেকে গলোভিনের এই নির্ভুল নিশানা তাক লাগিয়ে দিয়েছে গোটা বিশ্বকে। লুঝনিকি স্টেডিয়ামের ভিআইপি বক্সে বসা ভ্লাদিমির পুতিন আর জিয়ান্নি ইনফ্যান্তিনোও যেন উত্তেজনায় কেঁপে উঠলেন। রাশিয়া প্রেসিডেন্ট কিংবা ফিফা সভাপতি শুনতে পান বা না পান, গোটা মস্কো শহরই তখন রাশিয়ানদের চিৎকারে কাঁপছে। ইতিহাসে প্রথমবারের মতো নিজেদের মাটিতে আয়োজিত বিশ্ব আসরের উদ্বোধনী ম্যাচেই সৌদি আরবকে ৫-০ গোলে বিধ্বস্ত করে ততক্ষণে বুনো উল্লাসে মেতেছে স্বাগতিকরা।

শুধু বল দখলে রাখা ছাড়া আর কোনো ক্ষেত্রেই রাশিয়ার কাছে পাত্তা পায়নি সৌদি আরব। ৭ বার গোলে শট নিয়ে ৫টিতেই স্কোর করেছে স্বাগতিকরা। বিপরীতে সৌদি আরবের আক্রমণভাগ গোলে শট নিতে পারেনি একবারও। লালদের এই আক্রমণের পসরায় বিশ্বকাপের ২১তম আসরের প্রথম গোলটি আসে ১২ মিনিটে গাজিনস্কির হেড থেকে।

প্রথমার্ধের শেষদিকে জবনিনের সহায়তায় নিজের প্রথম গোলটি করেন চেরিশেভ। ২-০ গোলে লিডে ম্যাচের লাগামটাও নিজেদের হাতে নিয়ে নেয় রাশিয়া।

নিজেদের মাঠে দর্শক সমর্থন আর বিশ্বমঞ্চে খেলার আবেগ- সব মিলিয়ে শরীরি ভাষায় টগবগে আবির্ভাব কোচ শেরচেশভের শিষ্যদের। ম্যাচের শেষভাগে যেন আরো উড়ন্ত তারা। বদলী হিসেবে নেমে দেড় মিনিটের মাথায় গোল করেন জিউবা। ২০০২ বিশ্বকাপে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে পোল্যান্ডের হয়ে মার্চিনের করা গোলের পর, বদলী ফুটবলার হিসেবে সবচেয়ে কম সময়ে গোলের রেকর্ডে নাম লেখান তিনি।

এখানেই শেষ নয়। যোগ হওয়া সময়ে আরো ২টি গোল করেছে রাশিয়া। দারুণ দক্ষতায় নিজের জোড়া গোল করতে ভুল হয়নি চেরিশেভের। আর ৩ মিনিট পর গলোভিনের গোলে ৫-০ গোলের জয়ে মাতে স্বাগতিকরা।-সময় নিউজ।