রোনালদোর রেকর্ডের ম্যাচে পর্তুগালের জয়

পর্তুগালের বিপক্ষে হেরে শীর্ষ ষোলোর লড়াই থেকে এক রকম ছিটকেই গেছে মরক্কো। তবে, শক্তিশালী পর্তুগিজদের বিপক্ষে আফ্রিকান দলটির লড়াই ছিল চোখে পড়ার মতো। ইরানের বিপক্ষে নিজেদের প্রথম ম্যাচে হারের পর বাঁচা মরার লড়াইয়ে বলের দখল এবং অনটার্গেট শ্যুটে পর্তুগালের চেয়ে স্পষ্ট ব্যবধানে এগিয়ে ছিল মরক্কো।

মুহুর্মুহু আক্রমণ আর সুযোগ তৈরি করেও জালটাই খুঁজে পায়নি। তাই তো পুরো ম্যাচে আলো ছড়ানো মরক্কো অধিনায়ক মেধী বেনেতিয়ার কান্নার অর্থ হতে পারে দুইটা- শীর্ষ ষোলোর স্বপ্ন ধূসর হয়ে যাওয়া অথবা এত ভালো খেলেও গোলের দেখা না পাওয়া।

ম্যাচের শুরুতেই এগিয়ে যায় পর্তুগাল। খেলার মাত্র ৪ মিনিটেই রোনালদোর গোলে লিড নেয়। জোয়ান মুতিনহোর ক্রসে সবাই যখন লাফিয়ে উঠেছেন, রোনালদো তখন হেক্সা দৌড়ে জায়গা করে নিয়ে দারুণ দক্ষতায় মাথা নিচু করে হেডে জালে বল জড়ান।

রাশিয়া বিশ্বকাপে এটি রোনালদোর চতুর্থ গোল। মূলত এই গোলটি ছাড়া একেবারেই রঙহীন ছিল পর্তুগালের খেলা।

দ্বিতীয়ার্ধে নিজেদের রক্ষণ সামলাতেই ব্যস্ত থাকতে হয়েছে পর্তুগালকে। ৫৫ মিনিটে আমরাবতের দারুর শট রুখে দেন পর্তুগাল গোলরক্ষক রুই পেট্রিসিও। দুই মিনিট পর আবারও পরীক্ষায় উতরে যান পেট্রিসিও। বেলহানদার হেড দারুণ দক্ষতায় ঠেকিয়ে দেন।

৬০ মিনিটে বক্সের ভেতর থেকে নেয়া বেনাতিয়ার জোরালো শট পোস্টের উপর দিয়ে চলে যায়। ৭৮ আবারও মিস করেন বেনাতিয়া।

৮০ মিনিটে বক্সের মধ্যে ডিফেন্ডার পেপের হাতে বল লাগলেও মরক্কোর পেনাল্টির আবেদনে সাড়া দেননি রেফারি।

৮৯ এবং ৯১ মিনিটে আরও দু’টি সুযোগ পোস্টের উপর দিয়ে পাঠিয়ে দেয়। এরসঙ্গেই উড়ে যায় শীর্ষ ষোলোর স্বপ্ন।