ফ্রান্সের ‘ঘরের শত্রু’ অঁরি

রাশিয়া বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালে সেন্ট পিটার্সবার্গ স্টেডিয়ামে বেলজিয়ামের বিপক্ষে খেলতে নামবে ফ্রান্স। ফুটবল বোদ্ধাদের মতে, শক্তির বিচারে দুই দলের মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই। কিন্তু সেখানে ঘরের শত্রু বিভীষণ হতে পারেন ফ্রান্সের কিংবদন্তি ফুটবলার থিয়েরি অঁরি। বেলজিয়ামের ডাগ আউটে সাবেক এই ফুটবলারকে দেখতে কিছুটা অদ্ভুত লাগবে বলে মন্তব্য করেছেন ফ্রান্সের অধিনায়ক হুগো লরিস।

২০১৬ সাল থেকে বেলজিয়ামের সহকারী কোচ হিসেবে কাজ করে আসছেন ফ্রান্সের সাবেক ফুটবলার থিয়েরি অঁরি। রাশিয়া বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার আগে হয়তো ভাবতেই পারেননি নিজ দেশের বিপক্ষ দলের সঙ্গে ডাগ আউটে থাকতে হবে তাকে। তাই এখন ফ্রান্সের সমর্থকদের কাছে নায়ক থেকে ভিলেনে রূপ নিয়েছেন তিনি। কিন্তু তাকে নিয়ে এ রকম কোনো কিছুই মনে করছেন না ফ্রান্সের গোলরক্ষক হুগো লরিস।

বেলজিয়ামের বিপক্ষে ম্যাচের আগে লরিস বলেন, ‘জাতীয় দলে তার সাথে দুই বছর একসঙ্গে খেলে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছি আমি। তিনি বড় মাপের খেলোয়াড় ছিলেন। এটা সত্যি যে, বেলজিয়াম ডাগ আউটে তাকে দেখে কিছুটা অদ্ভুত লাগবে। কিন্তু এটা তার ক্যারিয়ার এবং নিজের ভবিষ্যতের জন্যে এখানে শিখছেন তিনি।’বেলজিয়ামের ডাগ আউটে থাকলেও ম্যাচের আগে অঁরির মন দুই ভাগে পরিণত হবে বলে জানান লরিস।

তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি, ম্যাচ শুরুর আগে তার হৃদয় ভাগ হয়ে যাবে। কারণ তিনি একজন ফরাসি। নীল জার্সিতে অনেক ভালো মুহূর্ত কাটিয়েছেন এবং দেশের হয়ে সর্বোচ্চ গোলও করেছেন তিনি। তিনি বেলজিয়ামের সাথেই থাকবেন এবং দলকে সাহায্য করতে সবকিছুই করবেন।’অঁরির বেলজিয়াম ডাগ আউটে থাকা নিয়ে ফ্রান্স কোচ দিদিয়ের দেশম বলেন, ‘আপনি যখন নিজের পুরনো দলের বিপক্ষে খেলেন, তখন শত্রু হয়ে যান।

কিন্তু এখনকার পরিস্থিতিটা তার চেয়েও বড়। ডাগ আউটে বসে তিনি স্বদেশের মুখোমুখি হতে যাচ্ছেন।বেলজিয়ামের সহকারী কোচ হওয়ার পর এ রকম পরিস্থিতি যে আসবে, সেটা তিনি জানতেন। ব্যক্তিগতভাবে বললে, আমার এটা ভেবে আনন্দ লাগছে যে, তার সাথে দেখা করতে যাব আমি।’-সূত্র: গোল.কম