ফাইনালে উঠতে না পেরে যা বললেন হ্যারি কেইন

লুঝনিকি স্টেডিয়ামে ফেবারিট ইংল্যান্ডকে ২-১ গোলে পরাজিত করে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠে গেল ক্রোয়েশিয়া। প্রথম সেমিফাইনালে জিতে আগে থেকেই ফাইনালের টিকিটি নিশ্চিত করে বসে আছে ফ্রান্স। ১৫ জুলাই রাশিয়া বিশ্বকাপের ফাইনালে ফ্রান্সের মুখোমুখি হবে ক্রোয়েশিয়া।

আজ ম্যাচ শেষে ইংল্যান্ড অধিনায়ক হ্যারি কেইন বলেন, ‘এটা মেনে নেওয়া কঠিন, হারের বেদনায় মুষড়ে পড়েছি, হৃদয় ভেঙে গেছে আমাদের। তবে ভক্তরা যে সমর্থন দিয়ে গেছেন, তা আমাদের অভিভূত করেছে।’

আজকের ম্যাচে প্রথমার্ধে কেইরান ট্রিপারের ৫ মিনিটের মধ্যে করা দুর্দান্ত ফ্রি-কিক গোলকিপার ড্যানিয়েল সুবাসিচের হাত ফাঁকি দিয়ে ক্রোয়েশিয়ার জালে যায়গা করে নেয় ইংলিশরা। এতে ১-০ গোলে এগিয়ে থেকে প্রথমার্ধ শেষ করে ইংল্যান্ড। দ্বিতীয়ার্ধে খেলার ৬৯ মিনিটে সমতায় ফিরায় ক্রোয়েশিয়া। ডানপ্রান্ত থেকে সিমে ভ্রাসালিকোর লম্বা ক্রস ছুঁড়লে তাতে পা লাগিয়ে বিশ্বকাপে নিজের দ্বিতীয় গোল করেন ইভান পেরিসিচ।

খেলার প্রথমার্ধে আরও দুটো গোল করার সুযোগ হাতছাড়া করে রেড ডেভিলসরা। তবে ২৯ মিনিটে হ্যারি কেনের দুর্দান্ত শট যদি সুবাসিচ প্রতিরোধ করতে না পারতো তাহলে হাফ টাইমের মধ্যেই বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাওয়ার অবস্থানে চলে যেতো ক্রোয়েশিয়ার মতো শক্তিশালী দল।

যদিও পুরো খেলায় ক্রোয়েটদের অবস্থান এবং আক্রমণ ছিলো জোড়ালো, কিন্তু ইংলিশদের কৌশলের কাছে ধরাশায়ী হতে হয় তাদের। ৯০ মিনিট পার করে নাটকীয় এই খেলা গড়িয়েছে অতিরিক্ত সময়ে।