যোগ্য বলেই আমরা আজ ফাইনালে : ক্রোয়েশিয়ার কোচ

‘আমাদের জন্য স্মরণীয় দিন। ছেলেরা দুর্দান্ত খেলা উপহার দিয়েছে। অতিরিক্ত সময়ে জয়টা আমাদের প্রাপ্ত ছিল। ছেলেরা কখনো ভেঙে পড়েনি। আমরা যোগ্যতা দিয়েই ফাইনালে উঠেছি।’

ম্যাচের তিন মিনিটের সময় ক্রোয়েশিয়ার বক্সের একটু বাইরে ফ্রি-কিক পায় ইংল্যান্ড। ডেলে আলী বল নিয়ে ঢুকতে গেলে তাকে ফাউল করেন মদ্রিচ। শট নিতে আসেন কাইরেন ট্রিপিয়ার। ডান পায়ের বাঁকানো ফ্রি-কিকে দৃষ্টিনন্দন গোলে জাল খুঁজে নেন তিনি।

শুরুতেই পিছিয়ে পড়লেও দমে যায়নি ক্রোয়েটরা। ৬৮তম মিনিটে ক্রোয়েশিয়াকে সমতায় ফেরান ইভান পেরিসিচ। নির্ধারিত সময়ের খেলা ১-১ গোলে শেষ হয়। অতিরিক্ত সময়ের খেলার প্রথম ১৫ মিনিটেও গোল আসেনি। ১০৯তম মিনিটে মারিও মানজুকিচ গোলে নিজেদের ইতিহাসের প্রথমবার ফাইনাল নিশ্চিত করে ক্রোয়েশিয়া।

এমন জয়ে উচ্ছ্বাস আসে। তবে শিরোপা যখন একম্যাচ দূরে, নিজেদের উচ্ছ্বাসটা সীমানার মধ্যেই রাখছেন কোচ দালিচ, ‘আমাদের এখনো একটা ম্যাচ বাকি আছে। রোববারের ফাইনাল জিততে পারলেই আমাদের ষোলোকলা পূর্ণ হবে।’

‘সেমিফাইনালের মতো দুর্দান্ত খেলা উপহার দিয়েই আমরা বিশ্বকাপ জিতে ইতিহাসে ঢুকতে চাই। আশা রাখি আমরা বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হবোই।’ যোগ করেন দালিচ।

এদিকে, দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডকে ২-১ গোলে হারিয়ে বিশ্বকাপের ফাইনালের টিকিট নিশ্চিতের পর ক্রোয়েশিয়া কোচ জ্লাতকো দালিচ বলেছেন, যোগ্য দল হিসেবেই ক্রোয়েটরা শিরোপার মঞ্চে উঠেছে। ম্যাচ শেষে ডাগআউটে ফেরার পথে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় তিনি এ মন্তব্য করেন।