এবার ৯৮ এর বদলা নেবে ক্রোয়েশিয়া

ওই বিশ্বকাপের ২০ বছর পর ক্রোয়েশিয়া আবারো সেমিফাইনালে উঠল। সেমিতে এবার আর তাদের যাত্রা থামেনি। ৪২ লাখ জনসংখ্যার দেশটি উঠেছে ফাইনালে। ইংল্যান্ডকে ২-১ ব্যবধানে হারিয়ে ফাইনালের টিকিট পেয়েছে তারা।

১৯৯১ সালের ২৫ জুন স্বাধীনতা লাভ করে ক্রোয়েশিয়া। সাত বছর পর ফ্রান্স বিশ্বকাপে ক্রোয়েশিয়ার দলটি অঘটন ঘটাতে ঘটাতে উঠে যায় সেমিফাইনালে! পুরো ফুটবল বিশ্ব অবাক। তাহলে কি ক্রোয়াটরা স্বাগতিক ফ্রান্সকে হারিয়ে যাবে স্বপ্নের ফাইনালে?

লক্ষণ সেরকমই ছিল। ৪৬ মিনিটে দাভর সুকেরের গোলে লিড নেয় ক্রোয়েশিয়া। পিছিয়ে পড়ে দিদিয়ের দেশম, জিনেদিন জিদান, থিয়েরি অঁরিরা।

ফ্রান্সের আর্শীবাদ হয়ে আসেন লিলিয়ান থুরাম। ডিফেন্ডার ক্যারিয়ারের প্রথম গোল করে ফ্রান্সকে ম্যাচে ফেরান। কী আশ্চর্য, ৪৭ মিনিটে গোল শোধের পর ৬৯ মিনিটে তার গোলেই লিড নেয় ফ্রান্স। এরপর আর পেরে ওঠেনি পুরো টুর্নামেন্টে দুর্দান্ত খেলা ক্রোয়েশিয়া। ক্রোয়াটদের হারিয়ে ফ্রান্স ওঠে ফাইনালে। ফরাসিরা শেষ হাসিটা হাসে ব্রাজিলকে হারিয়ে।

রোববার মস্কোর ফাইনালে তাদের প্রতিপক্ষ ফ্রান্স। ২০ বছর আগে সেমিফাইনালে হারের বদলা নেওয়ার সুযোগ পাচ্ছে ক্রোয়েশিয়া। লুকা মডরিচ, ইভান রাকিটিচ, মারিও মানজুকিচ ও ইভান পেরিসিচরা এরই মধ্যে দেশকে দিয়েছেন সর্বোচ্চ সাফল্য।

এবার শুধু ফাইনাল আর শিরোপার অপেক্ষা। ফ্রান্সকে হারিয়ে শিরোপা পেলে ৯৮ এর সেমিফাইনালে হারের বদলা নিতে পারবে তারা।