যে অভ্যাসগুলো নষ্ট করছে আপনার ভোকাল কর্ড

আপনি কি কথা বলতে অনেক পছন্দ করেন? কিংবা মনের সুখে বা বন্ধুদের আড্ডায় হেঁড়ে গলায় গান গাইতে? একবার ভাবুন তো আপনি যদি কথা বলতে না পারেন তাহলে কি করবেন? এতো আনন্দ উল্লাস, নিজের রাগ ক্ষোভ, আবেগ অনুভূতি কীভাবে প্রকাশ করতেন যদি আপনার গলাতেই আওয়াজ না থাকতো? ভাবছেন গলার স্বরের আবার কি হতে পারে? আপনার কিছু খারাপ অভ্যাসের কারণে খুব সহজেই আপনার ভোকাল কর্ডের ওপরে খারাপ প্রভাব পড়তে পারে, যার কারণে নষ্ট হয়ে যেতে পারে আপনার কথা বলার বা গলা দিয়ে আওয়াজ বের করার ক্ষমতাটি। যারা গান গেয়ে থাকেন বা বক্তৃতা দিতে পছন্দ করেন তারা একবার ভেবে দেখুন কি দুরবস্থাতেই না পরবেন যদি আপনার খামখেয়ালীপনার কারণে ভোকাল কর্ডটিই নষ্ট হয়ে যায়।

১) ধূমপান করা
অনেকেই ধূমপান করেন এবং অতিরিক্ত মাত্রাতেই ধূমপান করে থাকেন। ধূমপানের ক্ষতিকর দিকগুলো সম্পর্কে সকলেরই ধারণা রয়েছে। কিন্তু যদি আপনার কথা বলা, গান গাওয়া অনেক পছন্দ হয়ে থাকে তাহলে ধূমপান করা বন্ধ করে দিন আজই। কারণ আপনি যখন ধূমপান করেন তখন সিগারেটের ধোঁয়া আপনার গলায় আঠালো উপাদানের মতো লেগে যায় যা গলার স্বাভাবিক কর্মক্ষমতা নষ্ট করে। এমনকি এর ফলে গলার কান্সারেও আক্রান্ত হতে পারেন আপনি। সুতরাং সাবধান।

২) পর্যাপ্ত পানি না পান করা
আমরা যখন কথা বলি তখন আমাদের ভোকাল কর্ড ভাইব্রেট হতে থাকে এবং অতিরিক্ত ঘর্ষণের সৃষ্টি হয় যদি এতে পানির ব্যবহারে লুব্রিকেন্ট না করা হয়। দিনে অন্তত ৮ থেকে ১২ গ্লাস পানি পান করা প্রয়োজন এবং প্রচুর পরিমাণে পানি সমৃদ্ধ ফল খান।

৩) অতিরিক্ত কথা বলা
অনেকেই আছেন যারা প্রয়োজনের চাইতে অনেক বেশী কথা বলেন। কথা বললে ক্ষতি কোথায় এমনটাই তাদের মনোভাব। কিন্তু কথা বললে অন্য কারো নয় আপনার নিজেরই ক্ষতি অনেক বেশী। অতিরিক্ত কথা বললে এবং নিজের ভোকাল কর্ড একেবারেই বিশ্রাম না দিলে ধীরে ধীরে নষ্টের পথে যেতে থাকে আপনার ভোকাল কর্ড। সুতরাং কথা বলার প্রয়োজন না হলে দয়া করে চুপ থাকাটাই ভালো।

৪) কিছুক্ষণ পর পরই গলা পরিষ্কার করা
অনেক শুচিবায়ুগ্রস্ত মানুষ রয়েছেন যারা কিছুক্ষণ পর পরই গলা পরিষ্কার করেন গলা খাঁকারি দেন। এতে আপনার ভোকাল কর্ড অনেক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। অতিরিক্ত কোনো কিছুই ভালো নয় তা সকলেই ভালো করে জানেন। তাই ভোকাল কর্ড নষ্ট না করতে চাইলে এই কাজটি বন্ধ করুন ।

৫) অতিরিক্ত ক্যাফেইন ও মদ্যপান করা
ক্যাফেইন সমৃদ্ধ পানীয় যেমন চা কফি এবং অ্যালকোহল এইসবই দেহকে পানিশূন্য করে দেয়। গলা শুকিয়ে যেতে থাকে কিছুক্ষণ পরপরই। একারণে ভোকাল কর্ডের অনেক ক্ষতি হয়। এর থেকে আপনি হারাতে পারেন আপনার কথা বলা বা গলা থেকে স্বর বের করার ক্ষমতা।

৬) গলার উপর চাপ ফেলা
আপনি কি অতিরিক্ত চিৎকার করেন? কিংবা রাগ উঠলেই চিৎকার করার অভ্যাস রয়েছে? তাহলে জেনে রাখুন আপনি নিজেই ক্ষতির করছেন আপনার। কিছুদিন পর হয়তো আপনার এই চিৎকার করার ক্ষমতাই থাকবে না। এছাড়াও গলার উপরে ভোকাল কর্ডের উপর চাপ পড়ে এমন কাজ করলেও অনেক ক্ষতি হয়। তাই এইসকল খারাপ অভ্যাস থেকে দূরে থাকুন।
সূত্র: 1mhealthtips