চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতেই হবে, উপায় নেই!

নারী কেলেঙ্কারীসহ নানান অভিযোগ আছে সাব্বির রহমানের উপর। এদিকে ইনজুরিতে খেলার বাইরে থেকেও নেতিবাচক বিষয়ে আলোচনায় নাসির হোসেন। এই দুই ক্রিকেটারকে নিয়ে উদ্বিঘ্ন ক্রিকেট বোর্ড।

মাঠের পারফরম্যান্সের থেকে বাইরেই আলোচনায় থাকছেন ক্রিকেটার সাব্বির রহমান। যার ফলে কয়েকবার জরিমানা গুনতে হয়েছে এই ক্রিকেটারকে।এরপরেও আচরণে পরিবর্তন আসে নি।

উইন্ডিজ সফর শেষ করে আজ (৯ আগস্ট) দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ দল। এরপর কোচ স্টিভ রোডসকে নিয়ে রাজধানীর ওয়েস্টিন হোটেলে বৈঠক করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। সেখানে আরও উপস্থিত ছিলেন বোর্ডের সদস্যরা। বৈঠকে অন্যান্য বিষয়ের পাশাপাশি ক্রিকেটারদের আচরণ ও নেতিবাচক বিষয় নিয়েও আলোচনা হয়েছে।

বৈঠক শেষে নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘এখানে দুজন ক্রিকেটারের নামই আসে ঘুরেফিরে। একজন এখনকার ক্রিকেটার, আরেকজন একটু পুরনো। পুরনো যে, সে তো এখন দলে নাই। আরেকজন যে দলে আছে, সেও না থাকার মতো অবস্থায় ঝুলছে। এটা আপনাদের বুঝতে হবে।’

পূর্বে বিভিন্ন অভিযোগে শাস্তি দিলেও খুব বেশি আমলে নেন নি অভিযুক্ত ক্রিকেটাররা। তাই, কঠিন শাস্তির পরিকল্পনায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। পাপন এই প্রসঙ্গে আরও বলেন, ‘কারো ব্যক্তিগত ব্যাপারে ঢোকা কঠিন। আমরা তো বাসায় গিয়ে মনিটর করে আসতে পারব না। ওদেরকেই বুঝতে হবে। সুযোগ দেওয়া হয়েছে প্রচুর, কিন্তু ওরা যদি ভালো হওয়ার, শোধরানোর সুযোগ না নেয়, তাহলে ওটা ওদের সমস্যা। বোর্ডের সমস্যা না।

আমরা মনে করেছিলাম, শেষ যে বিচারটি হয়েছিল, তারপর সব ঠিক হয়ে যাওয়া উচিত ছিল। কিন্তু তাতেও যদি ঠিক না হয়, তাহলে তো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতেই হবে, উপায় নেই। তবে এই ধরনের বিশৃঙ্খলা আমি মনে করি ক্রিকেটের জন্য অত্যন্ত খারাপ। যেহেতু ক্রিকেটটা বাংলাদশে ভালো জায়গায় আছে এটা নিয়ে বিতর্ক হোক, তা আমরা চাই না।’