ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত, মুখ খুললেন সালমান

বলিউড সুপারস্টার সালমান খানের নতুন প্রযোজনা ‘লাভরাত্রি’ নিয়ে কম জল ঘোলা হয়নি। ছবির নাম নিয়ে শুরু থেকেই আপত্তি উঠেছিল। ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগ আনা হয় ছবিটির বিরুদ্ধে। অভিযোগ আদালত পর্যন্ত গড়ায়। আদালতের নির্দেশে মামলাও হয় সালমান খানসহ এ ছবির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কয়েকজনের বিরুদ্ধে।

এরপর বিতর্ক এড়াতে ছবির নাম ‘লাভরাত্রি’ বদলে ‘লাভযাত্রী’ করেন সালমান। তবু বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না।

সালমান খান বলেছেন, ছবিটি ভালোবাসার গল্পের, ঘৃণার নয়। তাঁরা মানুষের অনুভূতিতে আঘাত দিতে চান না। ‘লাভযাত্রী’ ছবির প্রচারণার অংশ হিসেবে আয়োজিত এক কনসার্টে এ কথা বলেন বলিউড ভাইজান।

গত বুধবার রাতে মুম্বাইয়ে আয়োজিত ওই কনসার্টে উপস্থিত ছিলেন ‘লাভযাত্রী’ ছবির নায়ক সালমানের ভগ্নিপতি আয়ুশ শর্মা ও ছবির নায়িকা ওয়ারিনা হুসেন। এ ছবি দিয়ে দুজনেরই বলিউডে অভিষেক হচ্ছে।

এ ছাড়া উপস্থিত ছিলেন রোনিত রায়, সুরকার তানিশক বাগচি, শিল্পী উদিত নারায়ণ, পলক মাচ্চল, দর্শন রাওয়াল ও বাদশা।

এর আগে ডানপন্থী সংগঠন বিশ্ব হিন্দু পরিষদ ‘লাভরাত্রি ‘নাম নিয়ে আপত্তি জানায়। তারা বলে, নামটি হিন্দু ধর্মীয় উৎসব ‘নবরাত্রি’ থেকে নেওয়া হয়েছে। ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগ আনে তারা।

ছবির নাম কেন পরিবর্তন করা হলো, এমন প্রশ্নের জবাবে সালমান খান বলেন, ‘যখন আমরা ছবিটির নাম দেই, তখন ভেবেছি, নামটি সত্যিই সুন্দর। এতে কোনোপ্রকার নেতিবাচক সংজ্ঞাই ছিল না।’

‘গুজরাটে নবরাত্রি উৎসব চলাকালে ছবির শুটিং করা হয়। যদি কোনো ব্যক্তি মনে করেন, এটা আক্রমণাত্মক নাম, তবে আমরা তা পরিবর্তন করব। আমরা কারো অনুভূতিতে আঘাত করতে চাই না। কারণ, আমরা ভালোবাসার গল্প সৃষ্টি করছি, ঘৃণা নয়। যদি লাভযাত্রী নাম নিয়েও কারো আপত্তি থাকে, তবে আমরা এ নামও পরিবর্তন করব এবং নাম ছাড়াই ছবিটি মুক্তি দেব।’

নতুন নামের অর্থ সম্পর্কে বলিউড বাদশা বলেন, ‘ভালোবাসা একটি যাত্রা। অনেক মানুষ আছে, যাদের ভালোবাসার যাত্রা দীর্ঘ এবং অনেকের ভালোবাসার যাত্রা সংক্ষিপ্ত। আমি মনে করি, কেউ যদি ভালোবাসায় দুর্ভাগা হন, তিনিও ভাগ্যবান। কারণ যদি অল্প যাত্রাও থাকে, তবুও তা ভালো।’

গত ১২ সেপ্টেম্বর ভারতের বিহারের মোজাফফরপুরের সাবডিভিশনাল জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (পূর্ব) শৈলেন্দ্র রাই মিঠানপুর পুলিশ স্টেশনকে বাদীর আরজি মামলা হিসেবে নেওয়ার নির্দেশ দেন। আদালতে সালমান ও ‘লাভরাত্রি’ ছবির অভিনেতাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন আইনজীবী সুধীর কুমার ওঝা।

এর আগে ৬ সেপ্টেম্বর সুধীর কুমার ওঝা আদালতে আবেদন জানিয়ে বলেছিলেন, ছবিতে পবিত্র নবরাত্রি উৎসবের নামে মজা করা হয়েছে। তিনি বলেন, ছবিটি হিন্দু ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হেনেছে।

ওঝা বলেন, ছবির প্রমো তিনি দেখেছেন এবং সেখানে প্রচুর অশ্লীল দৃশ্য রয়েছে। ছবির টাইটেলে মা দুর্গাকে অসম্মান করা হয়েছে। নবরাত্রি উৎসবটি নয়দিন ধরে সনাতন ধর্মাবলম্বীরা উদযাপন করে থাকে।

‘লাভযাত্রী’ ছবিটি পরিচালনা করেছেন অভিরাজ মিনাওয়ালা। আগামী ৫ অক্টোবর ছবিটি মুক্তি পাবে।