জাতীয় দলে সুযোগ পেয়ে যা বললেন ফজলে রাব্বি

আলোচনার বাইরে থেকে হঠাৎ করেই বাংলাদেশ জাতীয় দলে সুযোগ পেলেন ৩০ বছর বয়সী বাঁহাতি স্পিনার ফজলে রাব্বি।প্রথমবারের মতো জাতীয় দলে ডাক পেয়ে দারুণ আনন্দিত এই অলরাউন্ডার। মূলত সাকিব আল হাসানের ইনজুরির কারণে কপাল খুলেছে এই অলরাউন্ডারের। আসন্ন জিম্বাবুয়ে সিরিজে মমিনুল হক কে সরিয়ে জায়গা নিয়েছেন ফজলে রাব্বী।

বাংলাদেশ জাতীয় দলে প্রায় প্রতিটি সিরিজেই অভিষেক হচ্ছে নতুন করে কোন ক্রিকেটারের। কিন্তু স্থায়ীভাবে টিকে থাকতে পারছেন না কোন ক্রিকেটার। তবে ফজলে রাব্বী জানালেন সুযোগ পেলে বাংলাদেশ দলের স্থায়ী হতে চান তিনি। বাংলাদেশ জাতীয় দলে সুযোগ পেয়ে ফজলে রাব্বি বলেন, দলে স্থায়ী হতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করবেন।

বৃহস্পতিবার (১১ অক্টোবর) বাংলানিউজকে দেয়া প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, ‘খুবই ভাল লাগছে। আপনারা জানেন সম্প্রতি আমি বেশ ভাল টাচে আছি। যদি একাদশে সুযোগ পাই নিজের জায়গাটি স্থায়ী করতে চেষ্টা করব।’

বেশ কয়েক মৌসুম ধরেই ঘরোয়া ক্রিকেটে তারকাখ্যাতি ছাড়াই নীরবে নিয়মিত পারফর্ম করছেন ফজলে রাব্বি। যে সুবাদে বাংলাদেশ ‘এ’ দলেও খেলছেন নিয়মিতই। ‘এ’ দলের সবশেষ দুই সিরিজে শ্রীলঙ্কা ও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ব্যাট-বল হাতে সাবলীল ছিলেন রাব্বি। দুই সিরিজের ৬ ওয়ানডেতে হাঁকিয়েছেন তিনটি ফিফটি, নিয়েছেন ৪টি উইকেট।

এছাড়া চলতি এনসিএলের প্রথম রাউন্ডের ম্যাচে রংপুর বিভাগের বিপক্ষে ক্যারিয়ার সর্বোচ্চ ১৯৫ রানের ইনিংস খেলেছেন ফজলে রাব্বি। উইকেট টেকার হিসেবে পরিচিত না হলেও রান চাপিয়ে রাখার জন্য বেশ পরিচিত বাঁহাতি অর্থোডক্স স্পিনার ফজলে রাব্বি।

ত্রিশ বছর বয়সে বাংলাদেশের অনেক ক্রিকেটারই ভাবতে থাকেন অবসরের ব্যাপারে। সেখানে ৩১তম জন্মদিনের সামনে দাঁড়িয়ে ক্যারিয়ারের নতুন শুরু পেলেন ফজলে রাব্বি। তাও কি-না বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের জায়গায়। দায়িত্ব থাকবে বিশাল, সম্বল হিসেবে আছে ঘরোয়া ক্রিকেটের দীর্ঘ অভিজ্ঞতা। সে অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে থিতু হওয়াটাই থাকবে তার লক্ষ্য।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১৫ সদস্যের বাংলাদেশ দল : মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), লিটন কুমার দাস, ইমরুল কায়েস, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, আরিফুল হক, মেহেদি হাসান মিরাজ, মোস্তাফিজুর রহমান, নাজমুল ইসলাম অপু, রুবেল হোসেন, আবু হায়দার রনি, মোহাম্মদ সাঈফউদ্দিন ও ফজলে মাহমুদ রাব্বি।