বখাটের প্রস্তাবে সাড়া না দেওয়াই কলেজছাত্রীকে জখম

মোঃ রাকিব আল রিয়াদ, ঠাকুরগাঁও করেসপন্ডেন্ট: ঠাকুরগাঁও শহরের সরকারপাড়া এলাকায় কলেজছাত্রী রুমি আক্তারকে কে মারপিট করা হয়েছে। এ ঘটনায় সোমবার রাতে কলেজছাত্রী বাদী হয়ে মো. মুন্না (২২) কে আসামী করে ঠাকুরগাঁও সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

আহত কলেজছাত্রী রুমি আক্তার শহরের শান্তিনগর এলাকার আফজাল হোসেনের মেয়ে এবং সে সরকারি মহিলা কলেজের ছাত্রী। অভিযুক্ত মুন্না সালন্দর ইউনিয়নের তেলিপাড়া এলাকার আব্দুর রফের ছেলে।

অভিযোগে বলা হয়, কলেজছাত্রী রুমি আক্তার প্রতিদিন শহরের সরকারপাড়া এলাকার মিনাল কম্পিউটারে ট্রেনিং সেন্টারে প্রশিক্ষণ নিতে যায়। আর সেসময় বখাটে যুবক মুন্না ওই কলেজছাত্রীকে উক্ত্যক্ত করত। সোমবার বিকেলে কলেজছাত্রী ওই ট্রেনিং সেন্টারে যাওয়ার সময় তার পথরোধ করে বখাকে মুন্না এবং অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করে।

এর প্রতিবাদ করলে মুন্না ওই ছাত্রীকে মারপিট করে। এক পর্যায়ে পকেট থেকে ধারালো খুড় বের করে কলেজছাত্রী রুমি আক্তারের শরীরের বিভিন্ন জায়গায় জখম করে মুন্না পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন কলেজছাত্রী রুমিকে উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

কলেজছাত্রী রুমি আক্তার বলেন, বখাটে যুবক মুন্না দীর্ঘদিন ধরে আমাকে রাস্তায় উক্ত্যক্ত করত এবং নানা ধরনের কু-প্রস্তাব দিত। তার প্রস্তাবে সাড়া না দেওয়ায় সে আমাকে জখম করেছে। আমি তার শাস্তি দাবি করছি।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, কলেজছাত্রী একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছে; সেটি তদন্ত করে আসামীর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অভিযুক্ত মুন্নার মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে সে বিষয়টি অস্বীকার করেন।