ঢাকা টেস্টে খেলার সম্ভাবনা খুবই কম : তামিম

ইনজুরি থেকে ফেরার মিশনে ব্যস্ত তামিম ইকবাল ঢাকা টেস্টে খেলার মত ফিট নন। বৃহস্পতিবার একাডেমী মাঠে স্পিন ও ডক স্টিকের বিপক্ষে ৪০ মিনিট ব্যাট করার পর সাংবাদিকদের নিজের বর্তমান অবস্থা জানিয়েছেন তামিম।

সিলেটে জিম্বাবুয়ের বোলারদের সামনে বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের দৃষ্টিকটু ব্যাটিং বার বার সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকাবালের শুন্যতা প্রকট ভাবে অনুভব করিয়ে দিচ্ছিল। কিন্তু ইনজুরি কাটিয়ে সম্পূর্ণ ম্যাচ ফিটনেস অর্জন করার পথটা আরও দীর্ঘ এই দুই ক্রিকেটারের জন্য।

তামিম ইকবাল, যিনি ইতিমধ্যেই নেটে ফিরেছেন, আপাতত দুইদিন পর শুরু হতে যাওয়া ঢাকা টেস্টে খেলার সম্ভাবনা প্রায় উড়িয়ে দিয়েছেন। তামিমের ভাষায়,

‘অনেক কম, অনেক অনেক কম। আমার কাছে মনে হয় আমি পারবো, কিন্তু আমি তৈরি নই। আর আমার মনে হয় না ফিজিও আমাকে কোনভাবে এই ব্যাপারে অনুমতি দিবে কারণ মাত্র তিন দিন হয়েছে আমি ব্যাটিং শুরু করেছি, তাও এটিকে সেমি ব্যাটিং বলতে পারি যেটি আমি করছি এখন। সুতরাং যতদিন আমি পুরোপুরিভাবে নেট সেশন শুরু না করব এটি দলের জন্য ভাল হবে না। আমার পক্ষ থেকেও ফিট হিসেবে দাবি করা সম্ভব হবে না টেস্টের জন্য।’

তামিমের হাতে শক্তি ফিরে পেতে আরও কিছুদিন সময় লাগবে। স্পিনের বিপক্ষে ব্যাট করে বুঝেছেন, কিছু শট খেলতে এখনও ব্যথা অনুভব করেন তামিম। ‘অনেক বেশি ব্যথা অনুভব করিনা, তবে ব্যথা কিছুটা আছে, কিছু বিশেষ শট খেলতে গেলে ব্যথা আছে। সেটি অবশ্য থাকবেই কারণ হাতে দুর্বলতা আছে।

‘তো যত বেশি আমি স্ট্রেন্থের কাজটি করতে থাকব এবং যখন পুরোপুরি এই স্ট্রেন্থটা এসে যাবে তখন দুর্বলতাটাও কেটে যাবে। তবে ইতিবাচক ব্যাপার হল ব্যাটিং না করার মত কোন ব্যথা আমি অনুভব করছি না।’

গত সেপ্টেম্বর থেকে মাঠের বাইরে থাকা তামিম এখন পর্যন্ত সম্পূর্ণ নেট সেশন করেননি। মাত্র তৃতীয় দিনের মত ব্যাট হাতে নেয়া তামিম ইকবালের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের চাহিদা ভালোই জানা। নেটে স্পিনের বিপক্ষে দুই একদিনের অনুশীলন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের দাবি মেটানোর জন্য যথেষ্ট নয়।

‘এই মুহূর্তে না। আজকে সম্ভবত তৃতীয় দিন আমি ব্যাটিং করেছি, তবে এখনও পুরো নেট সেশন করিনি। স্পিন খেলা, ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলা, সাথে যখন আপনি ১৩০-১৪০ গতিতে বল খেলবেন সেখানে আসলে অনেক পার্থক্য রয়েছে।

‘আমি জানি না সেখানে আমার হাত কিভাবে রিঅ্যাক্ট করে। তবে এখন পর্যন্ত বিষয়গুলো অনেক ইতিবাচকই লাগছে। আশা করি আগামী তিন দিনের মধ্যে আমি পুরো নেট সেশন করবো এবং তখন আরও ভাল বুঝতে পারব যে আমার অবস্থা কোন পর্যায়ে আছে,’ বলেছেন তামিম।

তামিম ইকবালের অনুশীলন দেখতে একাডেমী মাঠে এসেছিলেন জাতীয় দলের ফিজিও থিহান চন্দ্রমোহন। সঠিক প্রক্রিয়ায় মাঠে ফিরুক তামিম, এটাই ফিজিওর চাওয়া।