পায়ের গোড়ালি ফাটা রোধে কিছু কার্যকরী টিপস

পায়ের গোড়ালি ফাটার সমস্যা বেশ বিরক্তিকর। আর শীতকালে এ সমস্যায় অনেকেই ভোগেন। সমাধানের জন্য রয়েছে কার্যকর পন্থা। ঘরোয়া পরিচর্যার জন্য কিছু পরামর্শ দেওয়া হলো- পা ফাটা প্রতিরোধের জন্য প্রতিদিন সকালে গোসলের আগে পায়ে ভালো করে এক চা-চামচ তিলের তেল বা নারিকেল তেলের সঙ্গে তিন-চার ফোঁটা ল্যাভেন্ডার অয়েল বা আমন্ড অয়েল, এক চা-চামচ গ্লিসারিন, এক চা-চামচ গোলাপ পানি, সিকি চামচ ভিনিগার মিশিয়ে পুরো হাতে, পায়ে, পায়ের পাতায় লাগিয়ে দশ মিনিট অপেক্ষা করুন।

এর পর সামান্য গরম পানিতে হাত-পা ধুয়ে আলতো করে ময়েশ্চারাইজার মালিশ করে নিন। রাতে শোবার সময় হালকা গরম পানিতে পা ধোয়ার পর ১০০ গ্রাম নারিকেল তেলের সঙ্গে ৫ গ্রাম কর্পুর, ২০ গ্রাম প্যারাফিনওয়্যাক্স মিশিয়ে গরম করে একটি পাত্রে রেখে দিন। এ মিশ্রণ পায়ের ফাটা জায়গায় লাগিয়ে কোনো সুতির মোজা পরে নিন।

বাড়িতে সবসময় স্লিপার বা সুতির মোজা পরা অভ্যাস করুন। এক চা-চামচ পেট্রোলিয়াম জেলির সঙ্গে এক টেবিল-চামচ মুলতানি মাটি, এক চা-চামচ মধু, দুই চা-চামচ গ্লিসারিন, এক চা-চামচ মুগডাল বাটা, দুই চা-চামচ গোলাপ জল দিয়ে পেস্ট বানিয়ে পুরো পায়ে ১৫ মিনিট লাগিয়ে রেখে হালকা গরম পানিতে ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত এ প্যাক লাগালে পা ফাটা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে।

আরো পড়ুন: ওজন কমাতে আদা-লেবুর পানীয় , আদা ও লেবুর পানীয় ওজন কমাতে এবং পেটের মেদ ঝরাতে দ্রুত কাজ করে। আদা হজম ভালো করে এবং ক্ষুধা নিয়ন্ত্রণ করে। এ ছাড়া আদার পানি কঠিন চর্বিকে কমাতে সাহায্য করে। এই পানীয় নিয়মিত খেলে দ্রুত মেদ ঝরে।লেবু শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থ দূর করতে উপকারী। আর মধু ওজন কমাতে শক্তিশালী উপাদান হিসেবে কাজ করে এবং পানীয়টি সুবাসিত করে।

ওজন কমাতে আদা-লেবুর পানীয় তৈরির উপায় জানিয়েছে স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট ডেমিক। ওজন কমাতে আদা-মধুর পানীয় তৈরির উপায় ,উপাদান, ১. আদা , ২. লেবু , ৩. মধু , যেভাবে তৈরি করবেন, প্রথমে একটি মাঝারি আকারের আদা কয়েক টুকরো করে কেটে নিন। এবার একটি মাঝারি আকারে লেবু নিয়ে সেটি কয়েক টুকরো করে কাটুন। এবার একটি পাত্রে এক লিটার পানি নিয়ে সেদ্ধ করুন।

এবার কিছুক্ষণ পর এতে আদা ও লেবুর টুকরোগুলো দিন। এবার চুলার আঁচ কমিয়ে কিছুক্ষণ সেদ্ধ করুন। চুলা বন্ধ করে কিছুক্ষণ ঢাকনা দিয়ে ঢেকে রাখুন। এরপর পানীয়টি থেকে আদা ও রসুন সরিয়ে ফেলুন। এবার পানীয়টি ছেঁকে নিন এবং এর মধ্যে এক চা চামচ মধু মেশান। তৈরি হয়ে গেল আদা ও লেবুর পানীয়। খাবার আগে অথবা পরে এই পানীয়টি দিনে এক থেকে দুবার পান করতে পারেন।