ভালবাসার সংজ্ঞা হারিয়েছেন? সত্য গল্পটি পড়ুন

ভালবাসা একটি মানবিক ও মানসিক অনুভূতি! তা হতে পারে কারো বাহ্যিক সৌন্দর্যের জন্য আবার হতে পারে কারো সুন্দর আচরণে সুন্দর একটি মনের প্রকাশের জন্য! ভালবাসায় যেমনি আছে অনাবিল আনন্দ তেমনি আছে সীমাহীন কষ্টও!

ভালবাসার ক্ষেত্রে আনন্দ আর কষ্ট হচ্ছে একটি মুদ্রার এপিঠ আর ওপিঠ! মুদ্রার এক পিঠ ব্যাতিত অন্য পিঠের যেমন অস্তিত্ব থাকেনা তেমনি দুঃখ-কষ্ট বিনা, আনন্দহীন ভালবাসার কোন অস্তিত্ব থাকে না! ভালবাসার মানুষটির কাছে যা প্রত্যাশা তা পেলে কতইনা আনন্দের বন্যা বয়ে যায় হৃদয়পটে আর না পেলেই সৃষ্টি হয় কষ্টের পাহাড় যা ডিঙানো অনেক সময় দুস্কর হয়ে পরে।

সেই দুস্করকে জয় করে এক ভালবাসার প্রতিচ্ছবি তৈরি করেছে এই দম্পতি। বলছি, কাটাবন মোড়ে ভ্যানের উপরে থাকা মানিক, মণি ও তাদের ছোট্ট মাঈনউদ্দিনের কথা। অনিক ভৌমিক নামে একজন চিত্রকরের ক্যামেরায় উঠে আসে তাদের জীবন। তার ফেসবুকের পোষ্টটি হুবহু তুলে দেয়া হল-

‘প্রেম কইরা পালিয়ে বিয়ে করাটা কি খুব দরকার ছিলো?
– ভাই রে…. মণিরে ভাল না বাইসা থাকতে পারি না কি করবো কন?

ভালবাসা নামের শব্দটির সংজ্ঞা যখন হারাতে বসচ্ছিলাম তখনই পরিচয় কাটাবন মোড়ের ভ্যানের উপরে থাকা এই ফ্যামিলির সাথে। কোলে যে সুন্দর ,ফুটফুটে বাচ্চাটি দেখচ্ছেন তার নাম মাঈনউদ্দিন…। বাবা মানিক ও মা এর নাম মণি।

রাস্তায় হাঁটার সময় হঠাৎ চোখ আটকে যায় তাদের দেখে। ভ্যানটা ধরতে গেলে তাদের এক অস্থায়ী আবাস…। এর পেছনের গল্পটা অন্য কোনো সাধারণ গল্প থেকে হয়তো আলাদা..। মানিকের সাথে মণির পরিচয়টা ছিলো বেশ বহুদিনের। দুজনেরই ফ্যামিলি ব্যাকগ্রাউন্ড মোটামুটি ভালোই ছিলো। প্রেম-ভালবাসা তার পরিণতিতে বিয়ে। কিন্তু সেটা ছিলো পালিয়ে.. মেয়ের ফ্যামিলি মেনে নিবেনা তার জন্যই পালিয়ে আসা।

জীবন কোনো সিনেমা নয়.. তার জন্যই তারা পায় নি কোনো লটারি,পায় নি সঠিক স্থান। ভাগ্যটা ঘোলা জলের ডোবা হলেও অফুরন্ত ভালবাসাটা যেনো সেই ডোবায় ফুটা পদ্মফুল। মণি অর্থাৎ মানিকের বৌ তাদের বিয়ের পর থেকে এখন পর্যন্ত হাতে তুলে মানিককে খাইয়ে দেয়। মানিক বৌ এর হাত ছাড়া খেতেই পারে না..।

অবাক না? অবাকের কিছুই নেই.. এটাই ভালবাসা। দুনিয়া-সংসার সব একদিকে আর মণি-মানিকের ভালবাসাটা একদিকে। মানিকের কাজ বলতে খুবই সাধারণ .. দিন মজুর হিসেবে কাজ করে সে।

যা পায়, তা দিয়ে খাবার কিনে তা দুজন মিলে ভাগ করে খাচ্ছে..। মাঈনউদ্দিন কে নিয়ে মানিকের বিশাল স্বপ্ন.. তার জন্যই এতো বড় নাম রাখা.. ছবি তোলার সময় বলেছিলো ‘ছেলে একদিন আপনার মতো বড় হবে.. তাই বড় একটা নাম রেখে দিছি’। বড় হওয়াটা পরের ব্যপার তবে যেখানে স্বপ্ন আছে বিশাল আর ভালবাসাটা আছে সাথে সেখানে ভালো কিছু হবেই হবে…

ভ্যানে থাকুক বা রাস্তায় কিংবা পৃথিবীর যেকোনো স্থানে জায়গা না পেলেও দুজনের হাত ধরে সাথে থাকাটার শক্তিটা যেখানে আছে সেখানে ‘অসুখী’ শব্দটি শুধুই বাংলা ডিকশনারির পাতায় থাকা শব্দ।

ভালবাসি, ভালবাসচ্ছি, ভালবাসুম, ভাল না বাইসা থাকতে পারি না তাই একসাথে থাকি.. আর কিছু বুঝি না… ভালবাসা বোধহয় এটাই.. সত্যি এটাই।’ সূত্র: ফেসবুক থেকে সংগৃহীত।