ব্রিজ নেই, ভেলায় ভাসিয়ে কবরস্থানে নিতে হয় লাশ!

ছোট একটা সেতু দরকার কিন্তু এটা না থাকায় মৃত লাশটা ভেলায় ভাসিয়ে দাফনের জন্য নেয়া হয়েছে। এটা কোনো কল্পনা না এটাই বাস্তবতা। আমাদের দেশের কত উন্নয়ন হচ্ছে কিন্তু কিছু অঞ্চলের মানুষ এখনো এই উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে কক্সবাজারের রামু উপজেলার কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের মনিরঝিল গ্রামের মানুষ।

স্বাধীনতার পর থেকে প্রায় ৫০ বছর এভাবে লাশ ভাসিয়ে নিচ্ছে তারা নেই কোনো সেতু। ছোট একটা সেতুর জন্য গ্রামের মানুষের যাতায়াতেও চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়।

জানা যায়, গত ২৫ জানুয়ারি ওই গ্রামের আব্দুল বারির পুত্র মনির আহম্মদের মৃত্যুর পর ভেলায় ভাসিয়ে মরদেহ দাফনের জন্য নেয়া হয়। ওই দৃশ্যের ছবি সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। কয়েক দিন ধরে দেশ জুড়ে বিষয়টি আলোচিত হচ্ছে। তবে এই ঘটনা গ্রামটির জন্য নতুন নয়। কোনো মানুষ মারা গেলে এভাবেই তার লাশ নেয়া হয় অন্য পাড়ে।

এবিষয়ে রামুর কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আব্দুল মালেক বলেন, অবহেলিত মনিরঝিল গ্রামটিতে স্বাধীনতার পর থেকেই রাবার ডেম, নদীভাঙন রোধসহ কিছুটা উন্নয়নের ছোঁয়া লাগলেও সোনাইছড়ি খালের ওপর নির্মাণাধীন একটি ব্রিজের কাজ অর্ধসমাপ্ত থাকায় ওই এলাকাটি এখনো বিচ্ছিন্ন রয়ে গেছে।

এ বিষয়ে কক্সবাজার রামু আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সারওয়ার কমল বলেন, বিষয়টি অবশ্যই দুঃখজনক। এ বিষয়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আশাকরি দ্রুত সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।পদ্মাটাইমস