আপনি কি জানেন এক কোয়া রসুনের শক্তি কত?

আমাদের দৈনন্দিন জীবনের খাদ্য তালিকার মধ্যে রসুন অন্যতম। তরকারীতে কিংবা অন্যান্য ভাবে আমরা রসুনের ব্যবহার করে থাকি।

এদিকে গবেষণায় বলা হয়েছে শারীরিক সমস্যায় রসুনের উপকারীতা অনেক। খালি পেটে রসুন খাওয়া হলে এটি একটি শক্তিশালী অ্যান্টিবায়োটিকের মতে কাজ করে। সকালে নাস্তার আগে রসুন খেলে এটি আরও কার্যকরীভাবে কাজ করে।

যক্ষা অথবা টিবি জাতীয় রোগের জন্য রসুন বেশ উপকারী। সে ক্ষেত্রে সারাদিনে একটি সম্পূর্ণ রসুন কয়েক অংশে বিভক্ত করে বার বার খেতে পারেন। অন্যদিকে উচ্চ রক্তচাপের জন্য এই রসুনের জুরি নেই। রসুন খাওয়ার ফলে শরীরে উচ্চরক্তোচাপ করে এবং পরিবর্তন আসে। রসুন যক্ষ্মা, নিউমোনিয়া, ব্রংকাইটিস, ফুসফুসের কনজেশন, হাপানি, হুপিং কাশি ইত্যাদি প্রতিরোধ করে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, রসুন প্যারাসাইট, কৃমি পরিত্রাণ, জিদ, সাঙ্ঘাতিক জ্বর, ডায়াবেটিস, বিষণ্ণতা এবং ক্যান্সার এর মত বড় বড় রোগ প্রতিরোধ করে।

সতর্কবার্তা: যাদের রসুন খাওয়ার ফলে এলার্জি হবার আশঙ্কা রয়েছে বা হয় তারা অবশ্যই কাঁচা রসুন খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। যাদের রসুন খাওয়ার ফলে মাথা ব্যথার সমস্যা হয়, বমির প্রাদুর্ভাব হয় বা অন্য কোন সমস্যা দেখা যায় তাদের জন্য কাঁচা রসুন না খাওয়াই ভালো।