কোনো নাটকের দৃশ্যপট নয়, থানার ওসির বুকে ঠাঁই পেলেন এক পরিত্যক্তা বৃদ্ধা মা

থানার ওসির বুকে ঠাঁই পেলেন এক পরিত্যক্তা বৃদ্ধা মা। এমন ভালো কাজ করে মানুষের প্রশংসায় ভাসছেন নারায়ণগঞ্জ জেলার আড়াইহাজার থানার ওসি নজরুল ইসলাম। মায়ের কাছ থেকে জায়গা সম্পত্তি লিখে নিয়ে রাতের আঁধারে সড়কে ফেলে দিয়ে গেছে তার গর্ভের দুই সন্তান। এমন খবর পেয়ে ছুটে যান ওই ওসি। সড়কে পড়ে থাকা সেই মাকে তুলে নিয়ে আসেন থানায়। আটক করেন ওই দুই পাষণ্ড সন্তানকে। পরে ওসির উদ্যোগে দুই সন্তানের কাছ থেকে বৃদ্ধার নামে ২ শতাংশ জমি লিখিয়ে নেন। এতে ওই বৃদ্ধা মায়ের মাথা গোঁজার একটি ঠাঁই হলো।

মঙ্গলবার বৃদ্ধা খোদেজা বেগমকে বুকে টেনে নিয়ে ওসি নজরুল বলেন, আপনি আমার মা। আপনি একা নন। আপনার এমন হাজারো ছেলে আপনার পাশে দাঁড়াবে।

বৃদ্ধা খোদেজা জানান, ১৯৭১ সালে তার স্বামী বিল্লাত আলী দুই ছেলে ও এক মেয়ে রেখে মারা যান। পরে পৈতৃক সূত্রে সন্তানেরা জমির মালিক হন। এক পর্যায়ে বৃদ্ধা তার বাবার বাড়ির জমি ও নিজের স্বামীর কাছ থেকে প্রাপ্য ২০ শতাংশ জমি চার বছর আগে সন্তানদের নামে লিখে দেন।

এখন ভাত কাপড় তো দূরের কথা। সন্তানদের কাছে মাথা গোঁজার ঠাঁই ছিলো না তার। এমনকি ছেলেদের স্ত্রীরাও তাকে বিভিন্ন সময় মারধরও করতো। ১৫ দিন আগে ছেলেরা তাকে রাতের আঁধারে সড়কে ফেলে যায়। তার থাকার ঘরেও তারা তালা ঝুলিয়ে দেয়। উপজেলার চৈতনকান্দা এলাকায় একটি সড়কে তিনি পড়ে ছিলেন।

ওই বৃদ্ধা বলেন, আল্লায় পোলাডার (ওসির) ভালো করুক। আমার কাছে তো ওরে দিমু তেমন কিছু নাই। তবে আল্লায় ওর ভালো করবো। অনেক বড় অইবো দোয়া দিলাম।

ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, আমি একজন অসহায় মায়ের পাশে দাঁড়াতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি। আমি বৃদ্ধার থাকার একটু ব্যবস্থা করে দিতে পেরেছি।