ব্যারিস্টার সুমনের বিরুদ্ধে মামলা: সোশ্যাল মিডিয়ায় তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড়

হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের কটূক্তি করার অভিযোগে ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়েছে। সোমবার বাংলাদেশ সাইবার ট্রাইব্যুনালে বিচারক আস-শামস জগলুল হোসেনের আদালতে এ মামলা করেন গৌতম কুমার এডবর নামক এক সমাজসেবক। তাকে আইনগত সহায়তা করেন অ্যাডভোকেট সুমন কুমার রায়। তার সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী সঞ্চয় কুমার দে দুর্জয়।

এর আগে গতকাল রোববার ঢাকা মহানগর হাকিম জিয়াউর রহমানের আদালতে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ও আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। পেনাল কোডের ১২৩ (এ), ১২৪ (এ) ও ৫০০ ধারায় মামলাটি আমলে নেয়ার জন্য ব্যারিস্টার সুমন আদালতে আবেদন করেন। আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে পরে খারিজের আদেশ দেন।

এদিকে, ব্যারিস্টার সুমনের বিরুদ্ধে মামলা করায় সোশ্যাল মিডিয়ায় তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড়। কেউ কেউ বলছেন ব্যারিস্টার সুমন ভাই ভাল মানুষ। এই মামলা খারিজ করে দেওয়া উচিত। আবার কেউ কেউ বলছেন, দেশে এই জন্যই কেউ ভাল কাজে এগিয়ে আসে না। যিনি আসেন, উল্টা তাঁর বিরুদ্ধেই অ্যাকশন নেয়। নানান মানুষের নানান প্রতিক্রিয়ায় যেন সোশ্যাল মিডিয়া ফুলে ফেপে উঠছে নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড়।

উল্লেখ্য, শুক্রবার (১৯ জুলাই) রাতে ফেসবুক লাইভে এসে মামলা করার ঘোষণা দিয়েছিলেন ব্যারিস্টার সুমন। সেদিন তিনি বলেন, ‘আমি তার বিরুদ্ধে অবশ্যই মামলা করব, আপনারা আমার পাশে থাকবেন।’ বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিয়া সাহা গত ১৭ জুলাই হোয়াইট হাউসে এক অনুষ্ঠানে ট্রাম্পের কাছে অভিযোগ করেন, বাংলাদেশে ধর্মীয় সংখ্যালঘুরা মৌলবাদীদের নিপীড়নের শিকার হচ্ছেন।

প্রায় ৩ কোটি ৭০ লাখ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান নিখোঁজ হয়েছেন। তার নিজের বাড়িঘরও পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।